২০২১ হতে পারে ‘বড়দা মিঠু’র

0
46

মাহমুদুল ইসলাম মিঠু। শোবিজের বাসিন্দারা ডাকেন ‘বড়দা মিঠু’। দুই যুগেরও বেশি সময় ধরে অভিনয় করছেন মঞ্চ ও টেলিভিশনে। এখন তিনি চলচ্চিত্রের ‘ভয়ংকর’ ভিলেন। রাজবাড়ির সন্তান মিঠুর অভিনয়ে যাত্রা শুরু রাজবাড়ির ‘চারণ থিয়েটার’র মধ্যদিয়ে ১৯৮১ সালে। এই থিয়েটারের হয়ে তিনি অভিনয় করেন ‘বাসন’, ‘এখনো কৃতদাস’, ‘তোমরাই’সহ আরো বেশ কয়েকটি নাটকে। এরপর ১৯৯০ সালে ঢাকায় এসে ‘ঢাকা থিয়েটার’র সাথে কাজ শুরু করেন। প্রথম এক বছর মঞ্চের পিছনে কাজ করলেও এরপর তিনি এই দলের হয়ে অভিনয় করেন ‘মুনতাসির ফ্যান্টাসী’, ‘ধুর্ত উই’, ‘হাত হদাই’সহ আরো বেশ কয়েকটি নাটকে। তবে টিভি নাটকে মিঠুর অভিষকে হয় রওশন আরা নীপার নির্দেশনায় ‘গোধূরী লগনে’ নাটকে। নাটকটি ২০০১ সালে বাংলাদেশ টেলিভিশনে প্রচার হয়। একই বছরে তিনি মিনহাজুর রহমানের নির্দেশনায় ‘তমশ’ নাটকেও অভিনয় করেন। পাশাপাশি বিবেশ রায়ের নির্দেশনায় কাহিনীচিত্র ‘ধানের কাব্য’তেও অভিনয় করেন। মিঠু অভিনীত প্রথম ধারাবাহিক নাটক ছিলো ‘সংসার’।

২২ বছর আগে প্রথম চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছিলেন—মোস্তাফিজুর রহমান বাবুর ‘জীবন মানেই যুদ্ধ’তে। তবে নিয়মিত হন ২০০৫ সাল থেকে। তবে মনতাজুর রহমান আকবর পরিচালিত ‘আগে যদি জানতাম তুই হবি পর’, ‘বুঝেনা সে বুঝেনা’ এবং ‘ডার্লিং’ চলচ্চিত্রে তার অভিনয় ছিলো প্রশংসনীয়। তার থেকে জানাগেছে, মনতাজুর রহমান আকবর বেশ কয়েকটি ছবিতে আমাকে সুযোগ দিয়েছিলো। তাই এখন আমি চলচ্চিত্রের অন্যতম ব্যস্ত খল অভিনেতা বলতে পারি। এখন আমি চলচ্চিত্রের অন্যতম ব্যস্ত খল অভিনেতা বলতে পারি। এরপর অনেক চ্যালেঞ্জিং খল চরিত্রে ও দেখা গেছে ।  সরকারী অনুদানের পাচটি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন তিনি। গেলো বছরের শেষ মাসে ও করেছেন বন্ধন বিশ্বাস পরিচালিত অনুদানের ছবি ‘ছায়াবৃক্ষ’। কিন্তু কথা হয় বছরের ২০২১ সালের প্রথম কোন সিনেমার সেটে। সিনেমাটির নাম ‘তবুও বিদায়’। বছরের নতুন দিনে কথা হয় এই অভিনেতার সাথে —-

তিনি বলেন, তিনটি মাধমেই কাজ করলেও আমি সবসময় আনন্দ পাই মঞ্চে অভিনয় করতে। টিভি নাটকে এবং চলচ্চিত্রে ব্যস্ত থাকায় মঞ্চে আর আগের মতো সময় দিতে পারি না। কিন্তু খুব মিসকরি মঞ্চকে। প্রতিনিয়তই বেশ ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছি।

বড়দা মিঠু বলেন, এবছরে ১৫ টা ছবির কথা চুরান্ত করে ফেলেছি। যার প্রত্যেকটি ছবিতে আমাকে প্রধান খল নায়ক হিসাবে দেখা যাবে। এর বেশি আপাতত কিছু বলতে চাচ্ছি না। সময় মতো সব কিছু আপনাদের জানিয়ে দেওয়া হবে। এরই মধ্যে ‘তবুও বিদায়’ ছবিটির শুটিং শেষ করে ডিপজল ভাইয়ের একটি সিনেমাতে ১৫ তারিখ হতে কাজ শুরু করবো। এই ছবির প্রধান ভিলেন আমি। আশা করছি আপনাদের দোয়াতে এবছরটা আমার জন্য ভালো যাবে। তাছাড়া বলা চলে এই বছরটা সিনেমা নিয়ে ব্যস্ত থাকবো বেশি।

এদিকে অভিনয়ে নিজের বর্তমান নিয়ে তিনি সন্তুষ্ট। তবে অতীত ভুলে যাননি, অভিনয়জীবনের শুরু থেকে এখন পর্যন্ত যাঁরা আমাকে বিভিন্নভাবে সাহায্য করেছেন, তাঁদের প্রত্যেকের কাছেই আমি কৃতজ্ঞ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here