হাটহাজারীতে সহপাঠীদের ছুরিকাঘাতে মিল্লাত নামে এক ট্রাক চালকের মৃত্যু

0
53
বিজ্ঞাপন

হাটহাজারী প্রতিনিধিঃ চট্টগ্রামের হাটহাজারী থানাধীন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন ১নং ওয়াড় দক্ষিণ পাহাড়তলি এলাকায় জুয়ার আসরে সহপাঠীদের ছুরিকাঘাতে মিল্লাত (৩৫) নামের একজন ট্রাক চালকের মৃত্যু হয়েছে।নিহত মিল্লাত দক্ষিণ পাহাড়তলির আমান বাজার এলাকার শান্তি কলোনির ব্রিকফিল্ড নামক স্থানে মোজাম্মেলের বাসায় পরিবার নিয়ে ভাড়ায় থাকেন, সে সন্দীপের কেলাপানি ইউনিয়নের হরিসপুর এলাকার ইয়াছিন সারাং এর বাড়ির মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলমের মেঝো পুত্র বলে জানা গেছে।

তারা তিন ভাই তিন বোন। তার ফাহিম নামের দশ বছরের ও মিনহাজ নামের চার বছরের ছেলে সন্তান রয়েছে।মিল্লাতের পরিবারের দাবি পার্শ্ববর্তী টিলাতে লুডো খেলতে গেলে সহপাঠী নাজিম (৫০) ওরফে (জামাই) এর ছুরি কাঘাতে তার মৃত্যু হয়ে। নাজিম ও তার সহকারীরা পালাতক রয়েছে বলে জানাগেছে। তবে নাজিমের নাম বলতে পারলেও বাকিদের নাম বলতে পারেনি নিহতের স্বজনেরা। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মিল্লাত প্রায়সময় ঐ এলাকায় লুডো খেলতে যায়, সেইদিনও তার বন্ধুদের নিয়ে খেলতে বসে।

বিজ্ঞাপন

তাদের মধ্যে কি নিয়ে বিবাদ সৃষ্টি হয়েছে তা কেউ টের কোন পাইনি, তবে টিলার আশেপাশে চাষাবাদ করতে যাওয়া কৃষকরা দেখে তার স্ত্রীকে খবর দেয়। খবর পেয়ে তার স্ত্রী ঘটনাস্থলে আসতে আসতে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ হয়ে মিল্লাত মারা যায়। এ বিষয়ে অভিযুক্ত নাজিমের স্ত্রীর কাছে জানতে চাইলে সে বলেন, তার স্বামী সেই দিন সকালে ঘর থেকে বের হয়ে কোথায় গেছে জানেনা, তবে বিকেল ৩টার দিকে বাসায় এসে ঘরের বাহির থেকে জুতা নিয়ে চলে যায়। সেই সময় নাজিমকে খুব ক্লান্ত দেখা গেছে। কোথায় গেছে বলে যায়নি।

নাজিম মেজাজি হলেও কখনো মাদকসেবন বা ধুম পান করতে দেখেনি। তার দুই মেয়ে ও এক ছেলে সন্তান রয়েছে। সে একসময় আনসার বাহিনীর চাকরি করতো বলেও জানান তার স্ত্রী। নাজিম খুলনা জেলার বাঘেরহাট উপজেলার চিতলমারী ইউনিয়নের ইসহাক উদ্দীনের বাড়ীর ইসহাকের ছেলে বলে জানাগেছে। তবে নাজিম ও মিল্লাতের পূর্বের কোনরকম শত্রুতা ছিলনা বলে দাবি করেন উভয়ের পরিবার। রোববার ২৭ই জুন বাদে মাগরিব শান্তি কলোনি এলাকার খোশাল শাহ্ জামে মসজিদ সংলগ্ন ঈদগাহে জানাজা নামাজ হয়ে পার্শ্ববর্তী কবরস্থানে নিহতের দাফনকাজ হবে বলে জানান তার পিতা জাহাঙ্গীর আলম।

এ বিষয় মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রফিকুল ইসলাম বলেন, ময়না তদন্তের পর লাশ দাফন কাজ সম্পন্ন করতে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে, আইনি প্রক্রিয়া চলমান রয়েছে। উল্লেখ্য, শনিবার ২৬ই জুন দুপুরবেলায় হাটহাজারী থানাধীন চসিক ১নং ওয়াড় দক্ষিণ পাহাড়তলি এলাকার আমান বাজারের পশ্চিমের একটি টিলায় নির্জন স্থানে এই ঘটনা ঘটে। পরে মডেল থানার পুলিশ মিল্লাতের লাশ উদ্ধার করে।

মো. সাহাবুদ্দীন সাইফ

বিজ্ঞাপন

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here