হাটহাজারীতে শারদীয় দুর্গাপূজার ব্যাপক প্রস্তুতি

0
45
বিজ্ঞাপন

হাটহাজারী (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধিঃ বাঙ্গালী সনাতন ধর্মাবলম্বী হিন্দুদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গা পূজাকে কেন্দ্র করে চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে প্রতিমা তৈরিতে ব্যস্ত সময় পার করছেন কারিগররা। বেশির ভাগ মণ্ডপে এখন শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি চলছে। করোনাভাইরাস সংক্রমণের কারণে দীর্ঘদিন ধর্মীয় উৎসব থেকে শুরু করে রাজনৈতিক সভা-সমাবেশ বন্ধ রয়েছে। এর মধ্যেই চলছে দুর্গাপূজার প্রস্তুতি। প্রস্তুতি চললে ও করোনা মহা মারির এ সময়ে আনুষ্ঠানিক ভাবে দুর্গাপূজা উদযাপন নিয়ে শঙ্কা আছে।

সাধারণত আশ্বিন মাসের শুক্ল পক্ষের ষষ্ঠ থেকে দশম দিন পর্যন্ত শারদীয়া দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হয়। এই পাঁচটি দিন যথাক্রমে দুর্গাষষ্ঠী, মহাসপ্তমী, মহাষ্টমী, মহানবমী ও বিজয়াদশমী নামে পরিচিত। আশ্বিন মাসের শুক্ল পক্ষটিকে বলা হয় দেবীপক্ষ। এই দিন হিন্দু দেবী লক্ষ্মীর পূজা করা হয়। আগামী ১১ই অক্টোবর দুর্গা ষষ্ঠীর মাধ্যমে শুরু হয়ে ১৫ই অক্টোবর বিজয়া দশমীর দিন প্রতিমা বিসর্জন দিয়ে শেষ হবে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের শারদীয় দুর্গোৎসব। উপজেলার বিভিন্ন পূজামণ্ডপ ঘুরে দেখা গেছে, দুর্গাপূজা উৎসবকে পরিপূর্ণ রূপ দিতে চলছে ব্যাপক সাজসজ্জা।

বিজ্ঞাপন

প্রতিটি মণ্ডপের জন্য তৈরি হচ্ছে দুর্গা, সরস্বতী, লক্ষ্মী, গণেশ, কার্তিক, অসুর, সিংহ, হাস, পেঁচাসহ বিভিন্ন প্রতিমা। অধিকাংশ মণ্ডপে শিল্পীর রং আর সাজসজ্জায় ফুটিয়ে তুলছেন দুর্গার পূর্ণ অবয়ব। শিল্পীরা রংতুলির কাজে ব্যস্ত। প্রতিমা শিল্পী প্রনীল পাল চট্টকোণকে বলেন, প্রতি বছর পূজার চার মাস আগে থেকে প্রতিমা তৈরির কাজে ব্যস্ততা শুরু হয়। এই কয়েক মাস দিনরাত কাজ করতে হয়। আর মাত্র কয়েক দিন বাকি আছে দুর্গাপূজার। প্রতিমা মোটামুটি তৈরি হয়েছে। এখন শুধু রং দিয়ে সৌন্দর্যবর্ধিত করতে হবে।

বর্তমানের প্রজন্ম পড়াশুনা করে বিভিন্ন মহলের সরকারী বা বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের দিকে ধাবিত হচ্ছে তাই নতুন করে কেউ প্রতিমা শিল্পে কাজ করার আগ্রহ করছেনা বলেও জানান প্রতিমা শিল্পীরা।

মো. সাহাবুদ্দীন সাইফ

বিজ্ঞাপন

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here