হাটহাজারীতে ছয় মাসেও জোড়া লাশের পরিচয় শনাক্ত করতে পারেনি পুলিশ

0
109
0 Shares

হাটহাজারী প্রতিনিধিঃ চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে গত ২৭শে ফেব্রুয়ারীতে অজ্ঞাত শিশু ও নারীর লাশ উদ্ধার হয়। গলিত ও অর্ধগলিত অজ্ঞাত নারী ও শিশুর দুটি লাশ উদ্ধার হওয়ার ছয় মাস পরেও লাশের সঠিক পরিচয় শনাক্ত করতে পারেনি পুলিশ। পুলিশ সূত্রে জানা যায়, হাটহাজারী থানাধীন চসিক ১নং দক্ষিণ পাহাড়তলী সন্দ্বী প কলোনি এলাকার সুমন কলোনির উত্তরে আলী দরগা গেইটের লেবু বাগানের দক্ষিণে

দুই পাহাড়ের মধ্যবর্তী কচুরিপানা পুকুরের উত্তর পাড়ে হাঁটুপানি থেকে গত ২৭ই ফেব্রুয়ারি) গলিত ও অর্ধ গলিত দুইটি লাশ উদ্ধার করা হয়। ওই লাশ দুইটির মধ্যে একটি অজ্ঞাত মহিলা, বয়স আনুমানিক (৩০) ও একটি অজ্ঞাত বাচ্চা, বয়স আনুমানিক (২/৩ মাস)। দীর্ঘ ছয় মাস পার হওয়ার পরেও অজ্ঞাত লাশ ২টির পরিচয় শনাক্ত করতে পারেনি পুলিশ।

এমনকি এ হত্যা মামলায় কোনো আসামিকেও গ্রেপ্তার করা হয়নি। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই ইউনুছ মিয়া বলেন, গত ২৭ই ফেব্রুয়ারি দিবাগত রাত আনুমানিক ১০টার পর অজ্ঞাত স্থানীয় ব্যক্তির সংবাদের ভিত্তিতে হাটহাজারী মডেল থানার পুলিশ, চট্টগ্রাম জেলা সিআইডি, পিবিআই টিম ক্রাইমসিন সংরক্ষণস্থলে গিয়ে বিধিগত কার্যক্রম শেষ করে লাশ উদ্ধার করে মর্গে প্রেরণ করা হয়।

অজ্ঞাত মহিলাটির পরিধানে পোশাক ছিল নকশা করা কালো নেভি ব্লু রঙের বোরকা, কালো খয়েরি রঙের প্রিন্টের শাল, কালো রঙের নেকাব, সবুজ রঙের সালোয়ার, সবুজ-সাদা-হলুদ চেক রঙের কামিজ। এবং বাচ্চাটিকে গলিত অবস্থায় পাওয়া যায়, তবে পরিধানে কোনো কাপড় ছিল না। থানায় এ নিয়ে অজ্ঞাতনামা একটি হত্যা মামলা ৩০২/২০১/৩৪ ধারা মোতাবেক রুজু করা হয়। মামলা নং ৪৬।

এই নিয়ে হাটহাজারী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মাসুদ আলম এর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, গলিত ও অর্ধগলিত অজ্ঞাত লাশ দুইটি শনাক্তকরণ প্রক্রিয়া চলছে এবং তদন্ত সাপেক্ষে আসামি গ্রেপ্তারের তৎপরতায় টিম মোতায়েন করা হয়েছে।

উন্নত প্রযুক্তিতে তদন্ত সাপেক্ষে লাশ শনাক্ত করে আসামিকে আইনের আওতায় আনার জন্য উক্ত মামলাটি চট্টগ্রাম পুলিশ ব্যুরো ইনভেস্টিগেশন পিবিআইয়ে প্রেরণ করা হয়েছে।

মোঃ সাহাবুদ্দীন সাইফ / দৈনিক সংবাদপত্র 

0 Shares

পোস্ট টি সম্পর্কে আপনার মতামত জানানঃ