হবিগঞ্জের নবীগন্জে বরকাস্তকৃত সাবেক ইউপি চেয়্যারম্যন পুলিশের খাঁচায় বন্দি

0
53
0 Shares
নবীগন্জ প্রতিনিধিঃ হবিগন্জ নবীগঞ্জে আলোচিত পানিউমন্দা নোয়াগাঁও গ্রামে সংঘটিত নারকীয় তান্ডব ও অগ্নি কান্ডের ঘটনায় মামলার মূল আসামী উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি ও বহিস্কৃত ইউনিয়ন চেয়ার ম্যান ইমদাদুর রহমান মুকুলকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। আজ বুধবার  বিকালে পালিয়ে যাবার সময় নবীগঞ্জ থানা ও হবিগঞ্জ ডিবি পুলিশের যৌথ অভিযানে তাকে  গ্রেফতার করেছে। সূত্রে জানা যায়, গত রবিবার সকালে পুর্ব শক্রতার জের ধরে উপজেলার গজনাইপুর ইউপির সাতাইহাল ৬ মৌজার সশস্ত্র লোকজন প্রায় ৩ কিঃ মিঃ দূরে অবস্থিত পানিউন্দা ইউপির নোয়াগাঁও রুক্ষারহাওর পাড়ের

মানুষদের বাড়িঘরে হামলা, ভাংচুর, লুটপাট, অগ্নিকান্ডসহ নারকীয় তান্ডব চালায়। এতে ১৫টি বাড়িঘর পুড়ে ছাই হয়। লুটপাট করে নেয়া হয় গরু, ছাগল, হাঁস-মোরগসহ বিপুল পরিমান ধান ও আসবাবপত্র। ক্ষতিগ্রস্থ হয় প্রায় কোটি টাকা। এ ঘটনার পর থেকে মানবেতর জীবনযাপন করছে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবার। এ লোমহর্ষক ঘটনায় মঙ্গলবার (১লা জুন) নোয়াগাঁও গ্রামের মৃত আব্দুস শহীদের ছেলে জামাল হোসাইন বাদী হয়ে নবীগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলায় গজনাইপুর ইউপির বহিস্কৃত  চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি  ইমদাদুর রহমান মুকুল,

বীর মুক্তিযোদ্ধা নূর উদ্দিন আহমদসহ ৪৭ জনের নাম উল্লেখ করে এবং আরও ২০০/২৫০ জনকে অজ্ঞাত আসামী করা হয়েছে। পুলিশ ইতিপূর্বে ৭জনকে গ্রেফতার করে জেল হাজতে প্রেরন করা হয়েছে। এলাকাবাসী ঘটনার গডফাদারদের গ্রেফতারের দাবী জানিয়ে আসছে। আজ বুধবার বিকালে নোয়াগাঁও গ্রামে সংঘটিত নার কীয় তান্ডব ও অগ্নিকান্ডের ঘটনায় দায়েরী মামলার প্রধান আসামী উপজেলা আওয়ামীলীগের  সাবেক সভাপতি ও বহিস্কৃত ইউনিয়ন চেয়ারম্যান ইমদাদুর রহমান মুকুল নিজ বাড়ী থেকে হবিগঞ্জ যাবার পথে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে নবীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ

মোঃ ডালিম আহমদের নেতৃত্বে একদল পুলিশ হবিগঞ্জ ডিবি পুলিশের সহযোগিতায় হবিগঞ্জের বৈদ্যার বাজার নামক স্থানে চেক পোষ্ট বসিয়ে তাকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ওসি ডালিম আহমদ। অন্যান্য আসামীদের গ্রেফতার অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলে জানান ওই কর্মকর্তা।

 
শাহরিয়ার আহমেদ শাওন 
 
0 Shares

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here