সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে এবার দেশিয় টক-মিষ্টি সুস্বাদু বরইয়ের ভালো ফলন হয়েছে।

0
309

জগন্নাথপুর (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে এবার দেশিয় টক-মিষ্টি সুস্বাদু বরইয়ের ভালো ফলন হয়েছে। এতে হাসির ঝলক ফুটে উঠেছে গাছের মালিকদের মুখে। উপজেলার প্রতিটি বাড়িতে কম-বেশি বরই গাছ রয়েছে। অন্য বছরের তুলনায় এবার বরইয়ের বাম্পার ফলন হয়েছে। গাছে-গাছে ঝুলছে বরইয়ের ডাল। যদিও এখনো পুরোপুরি বরই পাকেনি। আরো কয়েক দিন পর বরই পাকতে শুরু করবে। তবে বরইয়ের বাম্পার ফলন দেখে মানুষের মনে আনন্দ জেগেছে। এবার পরিবারের চাহিদা মিটিয়ে বরই বাজারে বিক্রি করা যাবে। এছাড়া দেশিয় টক-মিষ্টি বরইয়ের রয়েছে ব্যাপক চাহিদা। বাজারে উঠা মাত্র নিমিষে শেষ হয়ে যায়। ক্রেতারা লাইনে দাঁড়িয়ে দেশি বরই কিনে নিয়ে যাচ্ছেন। এর কারণ হিসেবে স্থানীয়রা জানান, দেশি বরই খুবই সুস্বাদু। এ বরই সবাই খেতে পছন্দ করেন। বিশেষ করে নারী ও শিশুরা। যে কারণে দেশি বরইয়ের কদর বেশি। এ বরইয়ে নেই কোন ফরমালিন। গাছ থেকে পেরে বাজারে নিয়ে আসছেন অনেক মালিক। অনেকে আবার নিজ গাছের বরই বিক্রি করে সংসার চালাচ্ছেন। যদিও বাজারে অনেক ধরণের মিষ্টি বরই থাকলেও ক্রেতাদের চাহিদা দেশিয় সেই টক-মিষ্টি বরই। তবে বাজারে দেশি বড়ইয়ের দাম খুবই চড়া। তবুও ক্রেতাদের কোন অভিযোগ নেই। বাজারে পাকা সুস্বাদু বরই দেখলেই কিনতে হুমড়ি খেয়ে পড়ছেন ক্রেতারা।
২৬ জানুয়ারি রোববার সরজমিনে দেখা যায়, বিভিন্ন মানুষের বাড়িতে দেশিয় বরইয়ের বাম্পার ফলন হয়েছে। গাছে-গাছে ঝুলছে পাকা-আধা পাকা বরইয়ের ডাল। এছাড়া জগন্নাথপুর সদর বাজারে চড়া দামে দেশিয় বরই কিনে নিচ্ছেন ক্রেতারা।
এ ব্যাপারে জগন্নাথপুর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা শওকত ওসমান মজুমদার বলেন, প্রকৃতি অনকুলে থাকায় ও আমাদের পরামর্শে সঠিক পরিচর্চা করায় জগন্নাথপুরে এবার দেশি বরইয়ের বাম্পার ফলন হয়েছে। আমরা চেষ্টা করছি দেশি বরই গাছে কলমের মাধ্যমে উন্নত জাতের বরইয়ের বিস্তার ঘটানো। যাতে বাণিজ্যিক ভাবে বরই চাষে আগ্রহী হন কৃষক ও মালিকরা। এতে দেশি বরইয়ের চাহিদা মিটিয়ে আর্থিকভাবে লাভবান হতে পারবেন মানুষ।

নিকেশ বৈদ্য / দৈনিক সংবাদপত্র

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here