সান্তাহারে মোবাইল চুরির অভিযোগে প্রতিবন্ধি যুবককে নির্মম নির্যাতন

0
53
0 Shares

আদমদীঘি (বগুড়া) প্রতিনিধিঃ বগুড়ার আদমদীঘি উপজেলার সান্তাহার ইউনিয়নের কাশিমিলা গ্রামে মোবাইল চুরির অপবাদে মোঃ সুরুজ (৩৫) নামের এক প্রতিবন্ধি যুবককে নির্মম ভাবে নির্যাতন করা হয়েছে বলে অভি যোগ মিলেছে। গ্রামবাসী নির্যাতিত যুবক কে স্থানীয় এক চিকিৎলয়ে চিকিৎসার ব্যবস্থা করেছেন। কিন্তু সুচিকিৎ সা না মেলায় সে যন্ত্রনায় কাতরাচ্ছে। নির্যাতিত যুবক ওই গ্রামের মৃত ফয়েজ উদ্দীনের ছেলে। প্রায় এক সপ্তাহ পুর্বে ঘটা ঘটনাটি নির্যাতনকারী সিন্ডিকেট ধামাচাপা দিয়ে রাখতে গিয়েও ব্যর্থ হয়েছে।

শুক্রবার ভাইরাল হয়ে গেছে ঘটনাটি। ঘটনাটিকে কেন্দ্র করে গ্রামের সাধারণ মানুষের মধ্যে চাপা উত্তেজনা বিরাজ করছে। জানা গেছে, ঈদুল ফিতরের পরদিন সান্তাহার ইউনিয়নের কাশিমিলা গ্রামের শরেফুলের মার্কেটের দোকান থেকে একটি মোবাইল ফোন চুরি হয়। পরে ওই মোবাইল চুরির অভিযোগে ওই দিন রাতে একই গ্রামের প্রতিবন্ধি যুবক সুরুজ কে ধরে মোবাইল মালিকের বাড়িতে নিয়ে যায়। তার হাত-পা বেঁধে মোবাইল ফোনের মালিক শরেফুলের ছেলে নাহিদ, ইউপি সদস্য মামুন এবং তাদের কয়েক সাঙ্গপাঙ্গ এক সাথে লাঠি দিয়ে সাপ পেটানোর মত নির্মম ভাবে পেটাতে থাকে।

এতে করে সুরুজের দুই নিতম্বসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে এখনো ফোলা জখমের দাগ স্পষ্ট হয়ে আছে। সে সুচিকিৎসা না পেয়ে নিজ বাড়িতে পড়ে পড়ে কাতড়াচ্ছে। গ্রামের লোকজন সাংবাদিকদের বলেন, তাঁরা ঘটনা জানার পর সুরুজকে উদ্ধার করে স্থানীয় পল্লী চিকিৎসক মোফাজ্জল হোসেন বাচ্চুর চিকিৎসালয়ে চিকিৎসা করানো হয়। কিন্তু ঘটনাটি ওই গ্রামের নির্যাতনকারী সিন্ডিকেট ধামাচাপা দিয়ে রেখেছে। তারা অত্যন্ত প্রতাপ শালী হবার কারনে ভয়ে নিশ্চুপ আছে গ্রামের সাধারণ মানুষ। এ বিষযে মোবাইল ফোন মালিক শরেফুল বললেন আমি সুরুজকে মারিনি, স্থানীয় মেম্বার একটু ভয়ভীতি দেখিয়েছে।

নির্যাতনের শিকার প্রতিবন্ধি সুরুজের চিকিৎসাকারী মোফাজ্জর হোসেন বাচ্চু জানান সুরুজকে অমানবিকভাবে নির্যাতন করা হয়েছে। যা কোন মানুষের পক্ষে করা সম্ভব না। এ বিষয়ে আদমদীঘি থানার ওসি মোঃ জালাল উদ্দিন বললেন মোবাইল ফোন চুরি বিষয়ে থানায় একটি জিডি করা হয়েছে। কাউকে মারপিট করা হয়েছে তা আমার জানা নেই। বিষয়টি তদন্ত পুর্বক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। সান্তাহার ইউপি চেয়ারমান এরশা দুল হক টুলু সাংবাদিকদের জানান, শনিবার বিয়য়টি নিয়ে বৈঠক করা হবে। সেখানে ঘটনার সত্য-মিথ্যা জানা যাবে।

সাগর খান

0 Shares

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here