রাস্তা সংস্কার না করায় ধানের চারা লাগিয়ে ব্যতিক্রমী প্রতিবাদ এলাকাবাসীর

0
86

নওগাঁ প্রতিনিধিঃ নওগাঁর মান্দা এবং মহাদেবপুর উপজেলার সীমান্তবর্তী এলাকা সতিহাটে যাওয়া-আসার রাস্তায় ধানের চারা রোপণ করে অভিনব প্রতিবাদ করেছেন স্থানীয়রা। দীর্ঘদিনেও রাস্তাটি সংস্কার না করায় ব্যতিক্রমী এ কর্মসূচি পালন করেন তারা। বুধবার (১৮ই আগষ্ট ) মান্দার গনেশপুর ইউনিয়নের সীমান্তবর্তী এলাকা মহাদেব পুর উপজেলার সফাপুর ইউনিয়নের কচুকুড়ির মৃত ফজর আলী সরদারের বাড়ির সামনে স্থানীয় বাসিন্দারা কর্দ মাক্ত রাস্তায় এ কর্মসূচি পালন করেন।

স্থানীয়রা জানান, মান্দার গনেশপুর এবং মহাদেবপুরের সফাপুর ইউনিয়নের কয়েকটি গ্রামকে সংযুক্ত করেছে এই কাঁচা রাস্তা। রাস্তাটি দিয়ে কৃষি পণ্য পরিবহনসহ হাজার-হাজার গ্রামবাসী চলাচল করেন নিয়মিত। ভ্যান, অটোচার্জার, ভুটভুটিসহ অন্যান্য ছোটছোট যানবাহন নিয়মিত চলাচল করে এই রাস্তা দিয়ে। মাটির রাস্তা হওয়া তে বৃষ্টি হলেই এ রাস্তাটির বিভিন্ন জায়গায় কর্দমাক্ত হয়ে যায়। এতে করে চলাচলে চরম ভোগান্তির শিকারহন পথচারীগণ। কচুকুড়ি গ্রামের বাসিন্দা আজিজার, আব্দুল জব্বার,

মমতাজ এবং রেজাউল ইসলামসহ আরো অনেকে বলেন, অল্প বৃষ্টি হলেই রাস্তাটি চলাচলের অনুপযুক্ত হয়ে পড়ে। কোনো গাড়ি চলাতো দূরে থাক হেঁটে যাওয়ায় অনেক ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে যায়। রাস্তাটি দীর্ঘদিন সংস্কার না করায় প্রতীকী প্রতিবাদস্বরূপ কর্দমাক্ত জায়গাতে স্থানীয় কয়েকজন যুবক মিলে ধানের চারা রোপণ করেন বলে জানিয়েছেন তারা। এ ব্যাপারে সফাপুর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান শামসুল আলম বাচ্চু বলেন, রাস্তাটির সংস্কার কার্যক্রম চলমান রয়েছে।

প্রথম ধাপে মাটি কাটার পর দ্বিতীয় ধাপে উপরিভাগে বালি এবং রাবিশ ফেলা হবে। এই পর্যায়ে বৃষ্টিপাত শুরু হওয়ায় এখন সংস্কার কার্যক্রম বন্ধ আছে। বৃষ্টিপাত বন্ধ হলে বাকি কাজ করা হবে। তিনি আরও বলেন, যেহেতু এটি মাটির রাস্তা, বৃষ্টি হলেই কর্দমাক্ত হয়। এজন্য স্থানীয় যুবকরা মনে করেছেন সেখানে মেরামত কাজ হবে না। খুব শিগগিরই সেখানে বাকি মেরামত কাজ সম্পন্ন করা হবে বলে আশ্বস্ত করেন ইউপি চেয়ারম্যান।

মাহবুবুজ্জামান সেতু

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here