মান্দায় মসজিদের টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

0
129
0 Shares

নওগাঁ প্রতিনিধিঃ নওগাঁর মান্দায় মসজিদের টাকা আত্মসাতের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ভারশোঁ ইউনিয়নের ছুটিপুর পূর্বপাড়া জামে মসজিদে বিগত বছরে দায়িত্বে থাকা ওই গ্রামের মৃত মোহর প্রামানিকের ছেলে সাইদুর রহমান ও নাতী আব্দুর রাজ্জাকের বিরুদ্ধে মসজিদের টাকাসহ অন্যান্য সামগ্রী আত্মসাতের অভিযোগ এনেছেন ওই মসজিদের বর্তমানে দায়িত্বপ্রাপ্ত সভাপতি খুশবর রহমান এবং সাধারণ সম্পাদক ফজলুর রহমান।

এ ঘটনায় সম্প্রতি ভারশোঁ চেয়ারম্যান সহ বিভিন্ন দপ্তরে তাদের বিরুদ্ধে একটি লিখিত অভিযোগ দেন তারা। এ অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে সমাধানের লক্ষে ইউপি চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান সুমন নোটিশের মাধ্যমে বাদী বিবাদী উভয়কে নিয়ে ইউনিয়ন পরিষদে বসার চেষ্টা করেন। কিন্তু বিবাদী পক্ষ উপস্থিত না হওয়ায় বিষয়টি সমাধান করা যায়নি বলে জানান তিনি। অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, ছুটিপুর পূর্বপাড়া জামে মসজিদে বিগত বছরে দায়িত্বে থাকা ওই গ্রামের মৃত মোহর প্রামানিকের ছেলে সাইদুর রহমান

মসজিদের অনুকূলে বরাদ্দকৃত ২ টন গম, মসজিদের ২ টি আম গাছ কর্তন, বরাদ্দকৃত দেড় বান টিন,দরজা ক্রয়ের টাকা,পায়খানা নির্মাণের টাকা, সিমেন্ট,টিনসহ লক্ষ-লক্ষ টাকার অন্যান্য অনুদান এবং অর্থ আত্মসাত করেছেন। অপরদিকে, সাইদুরের ছেলে আব্দুর রাজ্জাক ও একইভাবে মসজিদের আদায়ের কৌটার টাকা, জল শার মৌলভী ভাড়ার ৩ হাজার টাকা, ৩০০ টি ইট এবং মসজিদের ছাদ নির্মাণের অজুহাতে জনগণের নিকট হতে আদায়ের হাজার-হাজার টাকা আত্মসাত করেছেন।

এমতা বস্থায় মসজিদ কমিটির বর্তমান সভাপতি, সাধারণ সম্পদক এবং অন্যান্য সদস্যরা সম্মিলিত ভাবে মসজিদের বারান্দার সংস্কার কাজ শুরু করলে বিবাদীরা পূর্বের ন্যায় মসজিদের অর্থ আত্মসাত করার উদ্দেশ্যেই তারা বিভিন্ন ভাবে বাধা প্রদান করছেন বলে জানিয়েছেন মসজিদ কমিটির লোকজন। মসজিদের আত্মসাতকৃত টাকা আদায় সহ মসজিদ বিরোধী আচরণের জন্য আইনানুগ ব্যাবস্থা গ্রহণের দাবি জানিয়েছেন তারা।

তবে বিবাদী সাইদুর রহমান তার এবং তার ছেলের বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, আমাদের কে পরিকল্পিত ভাবে ফাঁসাতেই এমন অভিযোগ করা হয়েছে। এসব অভিযোগের কোন সত্যতা নেই। ভারশোঁ ইউপি চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান সুমন বলেন, অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

মাহবুবুজ্জামান সেতু / দৈনিক সংবাদপত্র 

0 Shares

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here