মহেশখালী পুলিশ সার্কেলের কড়া নিরাপত্তায় আদিনাথ মেলা সস্তিতে কর্তৃপক্ষ

0
69
0 Shares
কক্সবাজার সংবাদদাতাঃ প্রতি বছরে নিয়ম মোতাবেক আদিনাথ, অষ্টাভূজা, ভৈরব ও রাধা গোবিন্দ এর মন্দিরে একই সময়ে পূজো-অর্চনা হয়ে থাকে। প্রতিবার ১৫ দিন ব্যাপী হলেও কোভিড ১৯ করোনার কারণে ৭দিন চলবে এছাড়া প্রতি বৎসর ফাল্গুনের শিব চতুর্দ্দশী তিথিতে পূজো-অর্চনা ও পক্ষকাল ব্যাপী মেলা হয় তার ধারাবাহি কতায় এ পূজা উৎসব ও মেলা। এ সময় পূণ্য সঞ্চয় ও মনস্কামনা পূরণার্থে উপমহাদেশের বিভিন্ন স্থান হতে আগত তীর্থ যাত্রীদের পদচারণায় মন্দির প্রাঙ্গণ মুখরিত থাকে।

মন্দিরে বিরল প্রজাতির একটি পারিজাত ফুলগাছ রয়েছে। ভক্তগণ প্রতিনিয়ত মনস্কামনা পূরণার্থে মানত করে গাছে সূতা বেঁধে রেখে যান এবং কামনা পূর্ণ হলে সূতা খুলে পূজা অর্পণ করেন। মূল মন্দিরের পেছনের দিকে দুটি পুকুর রয়েছে। সুমুদ্র পৃষ্ঠ হতে প্রায় ২৮০ ফুট উচ্চতায় পুকুর দুটির অবস্থান হলেও এর জল কখনই শুকায় না। জনশ্রুতি রয়েছে দু্টি পুকুরের মধ্যে একটিতে স্নান করলে সকল রোগ দূর হয়। মেলা কতৃপক্ষের পূজা ও মেলা সম্পাদক শান্তি লাল নন্দী আমাদের প্রতিনিধি ইঞ্জি. হাফিজুর রহমান খান কে জানান,

মেলার সার্বিক নিরাপত্তা ব্যাবস্থা নিশ্চিত করতে মহেশখালী-কুতুবদিয়ার পুলিশ সার্কেল জনাব জাহেদুল ইস লামের স্যারের নেতৃত্বে সক্রিয় অবস্থানে রয়েছে মহেশখালী থানা পুলিশের বিশেষ টিম ৷ এছাড়াও মহেশখালী থানার এএসপি, ওসি, ওসি তদন্ত সহ অফিসার্স টিম পুরো মেলার বিভিন্ন দিক ঘুরে দেখেন ৷ এবং মেলায় আগত তীর্থযাত্রীদের বিভিন্ন বিষয়ে খোঁজ খবর নেন ৷ গতবছরের চেয়ে এবছর মেলায় তীর্থযাত্রীদের সংখ্যা বহুগুনে বেড়েছে, সেইসাথে মেলা কর্তৃপক্ষের ব্যাবস্থাপনাও ছিলো প্রশংসনীয়৷

 
আব্দুল হাই, ওসি মহেশখালী থানা বলেন, আদিনাথ পূজা ও মেলায় দর্শনার্থীদের খোঁজ খবর নিচ্ছেন মহেশখালী পুলিশ সার্কেল এএসপি জাহিদুল ইসলাম সহ আমার দায়িত্বাধীন থানা পুলিশের বিশেষ টীম। মহেশখালী পুলিশ সার্কেল এএসপি জাহেদুল ইসলাম বলেন, আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি জোরদার করণে মহেশখালী থানা পুলিশের পাশাপাশি, কক্সবাজার থেকে পুলিশের বিশেষ টিম দায়িত্ব পালন করছে ৷ তাদের সাথে সহযোগীতায় রয়েছে আনসার সদস্যরাও। 

হাফিজুর রহমান খান / দৈনিক সংবাদপত্র 

0 Shares

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here