বৈশাখী উপহার ও ত্রাণ বিতরণ করল গণবিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র পরিষদ

0
114
ফাইল ছবি
0 Shares

গণবিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধিঃ করোনা বিস্তার রোধে সারাদেশে চলছে লকডাউন। জরুরি সেবাখাত সমুহ ব্যাতিত সবকিছুই বন্ধ রয়েছে। সেই জরুরি সেবাখাতের কিছু মানুষ গণবিশ্ববিদ্যালয়ের (গবি) নিরাপত্তা ও পরিচ্ছন্নতার কাজে নিয়োজিত কর্মীরা। সময়ের নায়ক এখন স্বাস্থ্যকর্মীরা হলেও এই মানুষগুলো সবার নজর এড়িয়ে যাচ্ছে। যেকোন সময় করোনায় সংক্রমিত হতে পারে জেনেও নিরলস ভাবে নিজেদের কর্তব্য ব্যস্ত তারা। সবার নজর এড়িয়ে সময়ের সাহসী সৈনিকদের পাশে বৈশাখী উপহার হিসেবে ত্রাণ বিতরণ করল বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ ছাত্র পরিষদ। বৃহস্পতিবার (১৬ই এপ্রিল) দুপুরে ক্যাম্পাসের একাডেমিক ভবনের সামনে গণ বিশ্ববিদ্যালয় সাধারণ ছাত্র পরিষদের উদ্যোগে এ কার্যক্রম সম্পন্ন হয়। বিতরণকৃত বৈশাখী উপহার সমূহের মধ্যে ছিল চাউল, তেল, আলু, পেয়াজ ও লবণ ইত্যাদি।

আয়োজক সংগঠনের উপদেষ্টামন্ডলী এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন ও বর্তমান শিক্ষার্থীদের সহযোগিতায় এ সময় উপস্থিত ছিলেন ফিজিওথেরাপি অ্যালামনাই এসোসিয়েশনের সভাপতি ডা: আমিনুল ইসলাম (পিটি)। তিনি উপস্থিত সকলকে করোনা প্রতিরোধে করণীয় ও বর্জনীয় দিক সম্পর্কে দিকনির্দেশনা প্রদান করেন। এ সময় আরো বক্তব্য রাখেন ছাত্র পরিষদের সভাপতি রনি আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুর রহমান রনি, প্রতিষ্ঠাতা শেখ খোদারনুর রনি। তারা বলেন, ‘করোনার সংক্রমণ ঠেকাতে আপনারা ক্যাম্পাসে নিজেদের মধ্যে সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখবেন এবং সকল স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলবেন। চাইলেই আপনারা ক্যাম্পাসে হোম কোয়ারেন্টাইনের পরিবেশ তৈরী করতে পারেন। কারণ ক্যাম্পাসে বর্তমানে কোনো জনসমাগম নেই। এটা আপনাদের জন্য বাসার মত নিরাপদ জায়গা। 

তারা আরো বলেন, সংক্রমণ এড়াতে আপনারা শিফটে দায়িত্ব পালন করতে পারেন। এতে ঝুঁকি অনেক কমে যাবে। এছাড়া ক্যাম্পাসে বহিরাগত প্রবেশ করতে না দেয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট দায়িত্বশীলদের প্রতি আহ্বান জানান তারা। নিরাপত্তা ও পরিচ্ছন্নতা কর্মী ছাড়াও বিশ্ববিদ্যালয়ের ঝালমুড়ি, ফুসকা, ভেলপুরি, চটপটি, পিঠা বিক্রেতা এবং নানির দোকানেও বৈশাখী উপহার পৌছে দেয়া হয়। 

মেহেদী / দৈনিক সংবাদপত্র 

0 Shares

পোস্ট টি সম্পর্কে আপনার মতামত জানানঃ