বাগেরহাটে এক ব্যবসায়ীকে হত্যার চেষ্টার অভিযোগ

0
164
ফাইল ছবি

বাগেরহাট প্রতিনিধিঃ বাগেরহাটের মোল্লাহাটে এমদাদুল হক (৪৫) নামের এক ব্যবসায়ীকে হত্যার উদ্দেশ্যে ফার্মে ঢুকে ও মটরসাইকেল পুড়িয়ে দিয়েছে দূর্বৃত্তরা। তবে অল্পের জন্য রক্ষা পেয়েছে ব্যবসাীয় ও তার কর্মচারীরা। বুধবার রাতে উপজেলার কামারগ্রামে মৌলি ডেইরি ফার্মে এ ঘটনা ঘটে।
এমদাদুল হক কামারগ্রামে অবস্থিত মৌলি ডেইরি ফার্মের মালিক এবং আটজুড়ি ইউনিয়নের ৬ নং ওয়ার্ড (ভান্ডারকোলা) আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক।

ফার্মের ম্যানেজার পলাশ আহমেদ বলেন, রাত সাড়ে আটটার দিকে ফার্মের বাউন্ডারির মধ্যে লোকের উপস্থিতি টের পাই। পেয়ে মালিককে ফোন করি এবং যে পাশে শব্দ হচ্ছিল আমরা ওই পাশে দৌড়ে যাই। এর মধ্যে ফার্মের মালিক এমদাদুল হক চলে আসেন। গেটের সামনে মটর সাইকেল রেখে ভিতরে প্রবেশ করেন। কিছুক্ষন পরেই দেখি গেটের সামনে আগুন জলছে। আমরা দৌড়ে যেয়ে দেখি মটরসাইকেলটি পুড়ছে। ফার্মের মধ্যে আমাদের থাকার ঘরেরও ভেন্টিলেটর ভেঙ্গেছে দূর্বৃত্তরা।

প্রতিবেশি আমির আলী, ফয়সাল শেখসহ কয়েকজন বলেন, রাত্রে ডাকচিৎকার শুনে ফার্মের দিকে আসি। এসে দেখি মটরসাইকেলে আগন জ¦লছে। ফার্মের কর্মীরা নেভানোর চেষ্টা করছে। আমাদের মনে হয় ফার্মের মালিক এমদাদুল হককে হত্যার উদ্দেশ্যে দূর্বৃত্তরা এ ধরণের কাজ করতে পারে। ফার্মের মালিক এমদাদুল হক বলেন, ফার্মের ম্যানেজারে ফোন পেয়ে আমি দুইজন লোক নিয়ে ফার্মে আসি। গেটের সামনে মটরসাইকেল রেখে ফার্মের ভেতরে প্রবেশ করি। কোথাও কোন লোক লুকিয়ে আছে কিনা তা খুজতে থাকি। কিছুক্ষন পরে গেটের বাইরে আগুন জ্বলতে দেখি। সবাই দৌড়ে এসে দেখি গেটের সামনে আমার এ্যাপাচি আরটিআর মটরসাইকেলটি আগুনে পুড়ছে।

ফার্মের মটর ছেড়ে পানি দিয়ে অনেক চেষ্টা করে আগুন নেভাতে সক্ষম হই। এতক্ষনে মটরসাইকেলটি পুড়ে ছাই হয়ে যায়। সংঘবদ্ধ একটি গ্রুপ হয়ত আমাকে হত্যার উদ্দেশ্যে ফার্মে প্রবেশ করেছিল। টার্গেট মিস হওয়ায়, আমার মটর সাইকেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। আটজুড়ি ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি টিকলু মোল্লা বলেন, এমদাদুল হককে হত্যার উদ্দেশ্যেই দূর্বৃত্তরা ফার্মে প্রবেশ করেছিল। যারা এই ন্যাক্কার জনক কাজের সাথে জড়িত তাদের খুজে বের করে শাস্তির দাবি জানান তিনি। মোল্লাহাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজী গোলাম কবির বলেন, একটি অগ্নিকান্ডের ঘটনা শুনেছি। ফার্মের মালিক অভিযোগ দিলে মামলা দায়ের করা হবে বলে জানান তিনি।

মাসুম হাওলাদার / দৈনিক সংবাদপত্র 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here