বগুড়া সাইবার পুলিশের কার্যক্রম চলছে খুব ধীরে ধীরে

0
86

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ বগুড়া জেলা গোয়েন্দা পুলিশের সাইবার ইউনিটের ইনচার্জ ও ডেপুটি ইনচার্জকে শাস্তিমূলক বদলি করায় জেলা পুলিশের এই শাখার কার্যক্রম চলছে খুরে খুরে। সাইবার টিমের অপরাধের আঁচ ডিবি ইনচার্জ কেও লাগে। চাকরিকাল মাত্র ৯ মাস ১৯ দিনের মাথায় তাকেও রংপুর রেঞ্জে বদলি হতে হলো। অপর দিকে দুই হ্যাকারকে পুলিশের পরিচয়পত্র দেওয়া ও তাদের দিয়ে জনগণকে বিভিন্ন ভাবে হয়রানির ঘটনায় আজও কোনো তদন্ত হয়নি। ফলে ভুক্তভোগীসহ স্থানীয় সুশিল সমাজের মাঝে বিরূপ প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে।

ভুক্তভোগীরা এবিষয়ে আইজিপিসহ সরকারের সংশ্লিষ্ট দপ্তরের হস্তক্ষেপ কামনা করেছে। সাইবার পুলিশের কার্য ক্রম দেখভালের দায়িত্বে থাকা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) আলী হায়দার চৌধুরী এ প্রতিবেদক-কে বলেন, জেলা থেকে থানা পর্যন্ত তাদের কার্যক্রম আগের মতই আছে। এ কাজ গুলো ডিবি ও থানা পুলিশও করে থাকে। সাইবার অপরাধ নারীদের প্রতি বেশি হয় বলে প্রতিটি থানায় একজন করে নারী কর্মকর্তা দায়িত্ব পালন করছে। নতুন ইনচার্জ পোস্টিং দিলে সাইবার পুলিশের কার্যক্রম আরও গতিশীল হবে।

এছাড়াও ডিবি ইন্সচার্জের বদলি রুটিন মাফিক, এর সাথে আগের ঘটনার কোন সম্পর্ক নেই। অনুসন্ধানে জানা যায়, বগুড়া ও আশপাশের জেলায় সাইবার অপরাধ দমনে গত ২০১৯ সালের ২৪ জানুয়ারিতে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবির) সাথে নতুন করে সাইবার পুলিশ বগুডার (সিপিবি) যাত্রা শুরু হয়। সিপিবি ১২ সদস্যের টিম হলেও মূলত পরিচালনা করতেন, সাইবার ইনচার্জ পুলিশ পরিদর্শক এমরান মাহমুদ তুহিন ও উপ পুলিশ পরি দর্শক শওকত আলম।

সাইবার পুলিশ বগুডার (সিপিবির) শুরুতে কার্যক্রম নিয়ে জনগণ সন্তুষ্ট হলেও পরবর্তীতে এই ইউনিটের কার্যক্রম নিয়ে বিভিন্ন প্রশ্ন উঠে। জেলা গোয়েন্দা পুলিশ ডিবির তৎকালীন উপসহকারী পুলিশ পরিদর্শক শওকত আলম ২০১৯সালের ৪ জুলাই পুলিশ কনস্টেবল নিয়োগে ঘুষ বাণিজ্যে জড়িয়ে পড়ে। ফোন ট্রাকিং-এ বিষয়টি ধরা পড়লে সদর দফতরের নির্দেশে তাকে চট্টগ্রাম রেঞ্জের কুমিল্লায় ষ্ট্যান্ড রিলিজ করা হয়। পরে জাতিসংঘ মিশনে এক সংগে কাজের সুবাধে উর্ধতন এক পুলিশ কর্মকর্তা তাকে বগুডায় এনে উপ-পুলিশ পরিদর্শক পদে পদোন্নতি দেন।

এরপর তাকে সাইবার পুলিশের সেকেন্ডম্যান করা হয়। সাইবার পুলিশের ইনচার্জ ও ডেপুটি ইনচার্জকে অব্যহতি দেওয়া হলেও গত ২৩দিনে তাদের স্থলে কাউকে দায়িত্ব দেওয়া হয়নি। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বেশ কয়েকজন পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, সাইবার পুলিশ ডিবি পুলিশের একটি ইউনিট। সাইবার পুলিশের অপরাধ ডিবি পুলিশ এ ড়িয়ে যেতে পারেনা। তাই মাত্র ৯মাস আগে বদলি হয়ে আসা ডিবির উনচার্জ আব্দুর রাজ্জাকে গত ১১ই আগস্ট রংপুর রেঞ্জে বদলি করা হয়েছে।

সাধারণ জনগণকে পুলিশের আইডি কার্ড ইস্যু ও তাদের দিয়ে হয়রানি করার ঘটনায় আজও কোনো তদন্ত হয়নি। ভুক্তভোগীরা এ বিষয়ে সুষ্ঠু তদন্ত ও অপরাধীদের আইনের আওতায় আনতে পুলিশের আইজিপিসহ সরকারের সংশ্লিষ্ট দপ্তরের জরুরি হস্তক্ষেপ কামনা করেছে।

জিএম মিজান

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here