বগুড়ায় স্ত্রীকে জবাই করে হত্যা, স্বামী গ্রেফতার

0
38
0 Shares

বগুড়া প্রতিনিধিঃ বগুড়ার ধুনট উপজেলার পাঁচথুপি-সরোয়া গ্রামে শেফালী বেগম (৪৫) নামে এক গৃহবধূকে জবাই করে হত্যা করা হয়েছে। নিহতের ছেলের দাবি, তার বাবাই তার মাকে গলা কেটে হত্যা করেছেন। ঘটনার পর থেকে তার স্বামী এশারত আলী আকন্দ পলাতক রয়েছেন। শনিবার দিবাগত রাত ২টায় ধুনট উপজেলার চৌকিবাড়ি ইউনিয়নের পাঁচথুপি-সরোয়া গ্রামে হত্যার ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, ধুনট উপজেলার চৌকিবাড়ি ইউনিয়নের পাঁচথুপি-সরোয়া গ্রামে শনিবার রাতের খাবার খেয়ে শোবার ঘরে একই বিছানায় ঘুমিয়ে পড়েন এশারত আলী ও তার স্ত্রী শেফালী বেগম। রাত ২টায় হঠাৎ তাদের ঘর থেকে চিৎকার শুনতে পায় প্রতিবেশীরা। চিৎকারের আওয়াজ শুনে প্রতিবেশীরা এশারত আলীর ঘর চারদিক থেকে ঘিরে ফেলেন। তখন এশারতকে ঘরের দরজা খুলতে বলা হলে এশারত বলেন,

ঘরের ভেতর ঢোকার চেষ্টা করলে সবাইকে জবাই করব। এক পর্যায়ে এশারত আলী কৌশলে ঘরের দরজা খুলে পালিয়ে যায়। নিহতের ছেলে সেলিম হোসেন এ প্রতিবেদক-কে বলেন, সন্ধ্যায় মা ও বাবার মধ্যে পারিবারিক বিষয়াদি নিয়ে ঝগড়া হয়েছে। সেই ঝগড়ার জের ধরে বাবা আমার মাকে গলা কেটে হত্যার পর পালিয়েছে।
ধুনট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কৃপা বালা সিন্ধু

দৈনিক সংবাদপত্র প্রতিবেদক-কে বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (ওসি) হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। স্বামী এশারত আলীকে গ্রেফতার। 

জিএম মিজান / দৈনিক সংবাদপত্র

0 Shares

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here