বগুড়ায় পৌর নির্বাচনে বড় সতিনকে জেতাতে ছোট দুই সতিন মাঠে নেমেছেন

0
17
0 Shares

বগুড়া প্রতিনিধিঃ গল্প, নাটক, সিনেমায় সতিনের যে চরিত্র দেখি তা ঝগড়াটে, খান্নাস বা খারাপ দিকটায় বুঝায় কিন্তু, এর ব্যতিক্রম দেখা যায় নির্বাচনের মাঠে, আসন্ন পৌরসভা নির্বাচনে বগুড়ার শিবগঞ্জ পৌর নির্বাচনে ৪, ৫ ও ৬নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর প্রার্থী হয়েছেন মোছাঃ মাজেদা বেগম। তাঁর জয়ের জন্য ছোট দুই সতিন দিনরাত ভোটারদের দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন। প্রচন্ড শীতকেও উপেক্ষা সকাল থেকে গভীর রাত পযর্ন্ত প্ররিশ্রম করে যাচ্ছেন বড় সতিন মাজেদা বেগমকে জেতানোর জন্য।

একই সঙ্গে তিন সতিন ভোটারদের কাছে গিয়ে ভোট চাওয়ায় বিষয়টি ভোটারদের মধ্যে চাঞ্চল্যকর সৃষ্টি হয়েছে। ২ নম্বর সংরক্ষিত ওয়ার্ডের একাধিক ভোটার বলেছেন, বর্তমান সময়ে যখন এক সতিনের মুখ আরেক সতিন দেখে না,তখন বড় সতিনকে ভোটে জেতাতে ছোট দুই সতিন ভোটারদের দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন একটা ভোটের জন্য সত্যিই এটি একটি বিশ্ময়কর ঘটনা। অত্র ওয়াডের্র ভোটারেরা বলেন, মোছাঃ মাজেদা বেগম নারী আসনে র ২ নম্বর সংরক্ষিত ওয়ার্ড থেকে ‘আনারস’ প্রতীক নিয়ে নারী কাউন্সিলর পদে প্রতিদ্বন্দিতা করছেন।

প্রতিদিন সকাল থেকে গভীর রাত পযর্ন্ত প্রচন্ড শীত উপেক্ষা করে তাঁরা তিন সতিন যথাক্রমে- মিনু বেগম, রেনু বেগম ও মাজেদা বেগম স্বামী আব্দুস সামাদকে সাথে নিয়ে নির্বাচনী প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। মোছাঃ মিনু বেগম এ প্রতিবেদক-কে বলেন, আমাদের তিন সতিনের আলাদা হাঁড়ি হলেও সবাই আপন বোনের মতো। শুধু ভোটের মাঠেই নয়, সকল বিষয়ে আমরা একে অন্যের পাশে দাঁড়াই। মোছাঃ মাজেদা বেগম এ প্রতিবেদক-কে বলেন, অনেকেই মনে করেন ‘সতিন মানেই শত্রু।

কিন্তু আমাদের তিন সতিনের বষিয়টি ব্যতিক্রম তাই আমি নিজেকে বড় সৌভাগ্যবান মনে করি। ছোট দুই সতিনরা আমার কাছে বোনের মতো। আমাকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করলে অত্র এলাকায় নারী নির্যাতন ও বাল্য বিবাহ বন্ধ করতে সক্রিয় ভূমিকা পালন করবো। তিন সতিনের স্বামী মোঃ আব্দুস সামাদ এ প্রতিবেদক-কে বলেন, আমার স্ত্রীদের কে নিয়ে আমি গর্ববোধ করি। তাদের নিজেদের মধ্যে ঝগড়া ফাসাদ নেই তাঁরা সব সমস্যাকে আলোচনা করে সমাধান করে।

তাঁদের এই মিলেমিশে চলার বিয়ষটি ভোটারদের মাঝে প্রকাশ হওয়ায় ভোটারেরা সন্তোষ প্রকাশ করেছে। বর্ত মানে মাজেদা বেগম ৪, ৫ ও ৬নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলরের দায়িত্ব পালন করছেন। বর্তমানে, ৪, ৫ ও ৬নং ওয়ার্ডে তাঁর প্রতিদ্বন্দী আরও দুই জন সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর প্রার্থী রয়েছে। অত্র ওয়ার্ডের ভোটার সংখ্যা ৫ হাজার ৪৯৫ জন। আগামী ৩০ই জানুয়ারি ভোট গ্রহণ হবে।

জিএম মিজান / দৈনিক সংবাদপত্র 

0 Shares

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here