বগুড়ায় জামাইয়ের হাতে শ্বশুর খুন

0
41
বিজ্ঞাপন

বগুড়া প্রতিনিধিঃ বগুড়ার শেরপুর উপজেলার তিনমাথা নামক স্থানে আপন মেয়ে জামাই শ্বশুর আসাদুল ইস লাম (৫০) কে ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায়। তার চিৎকারে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে শেরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ১০টায় ঘটনাটি ঘটেছে। নিহত আসাদুল ইসলাম উপজেলার খামারকান্দি ইউনিয়নের পার ভবানীপুর গ্রামের মৃত ফজলুল হকের ছেলে। পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেছে। 

জানা যায়, শ্বশুর আসাদুল ইসলাম ও জামাই সাব্বিরের বাড়ী পার ভবানীপুর গ্রামে। সাব্বিরের বাবার নাম শাহিন আকন্দ। একই গ্রামে বাড়ী হওয়ায় সাব্বিরের সাথে নিহত আসাদুলের মেয়ে শিমুর প্রেমের সম্পর্ক হয়। প্রেমের টানে গত বছর সাব্বির শিমুকে নিয়ে পালিয়ে গিয়ে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়। কিন্তু সাব্বির বখাটে হওয়ায় আসা দুল জামাই হিসেবে তাকে মেনে নিতে অস্বীকৃতি জানায়। এরপর বেশ কয়েক দফা গ্রাম্য শালিসের পর গত ৫/৬ মাসে তাকে মেনে নেয়।

বিজ্ঞাপন

আসাদুল জামাই হিসাবে বিয়ে মেনে নেয়ার পর থেকেই সাব্বির তার শ্বশুরের কাছে যৌতুক দাবি করে আস ছিলো। এনিয়ে জামাই-শ্বশুরের মাঝে বিরোধ দেখা দেয়। এক পর্যায়ে বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ১০টায় আসাদুল বাজার থেকে বাড়ী ফেরার পথ অত্র এলাকার তিনমাথা নামক স্থানে পৌছলে সাব্বির তার শ্বশুরের পথরোধ করে টাকা দাবি করে। এনিয়ে তাদের মধ্যে বাকবিতন্ডার সৃষ্টি হয়। এসময় সাব্বির তার কাছে থাকা ছুরি দিয়ে শ্বশুরের বুকে ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায়।

শেরপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শহিদুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে এ প্রতিবেদক-কে বলেন, নিহতের লাশ উদ্ধার ময়নাতদন্তের জন্য বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাস পাতাল মর্গে প্রেরণ করেছে। জামাই সাব্বিরকে গ্রেফতার অভিযান অব্যহত আছে এবং মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

জিএম মিজান

বিজ্ঞাপন

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here