প্রথমবারের মতো একসঙ্গে তারা

0
59
0 Shares

কয়েক বছর আগেও ওয়েব ফিল্ম শব্দটির সঙ্গে কোনো পরিচয় ছিল না এ দেশের দর্শকদের। এখন এই শব্দটির সঙ্গেই ধীরে ধীরে দর্শকদের ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক গড়ে উঠছে। পশ্চিমেই প্রথম ওয়েব ফিল্মের সূত্রপাত। অনেকদিন শুধু এই নতুন ধারার কথাই শুনেছেন দর্শকরা। ধারাটির ঢেউ দর্শকদের উত্তেজিত করেছে প্রতিবেশী দেশেও এর জনপ্রিয়তা উথলে উঠলে। অন্য সব ট্রেন্ডের মতো ভারতে দিগি¦জয়ের পর বাংলাদেশেও ওয়েব ফিল্মের জোয়ার আসতে চলেছে। এটা এখনো ভবিষ্যৎকাল এই অর্থে যে, ওয়েব ফিল্ম এখনো বিপুল দর্শকদের কাছে পৌঁছেনি। কিন্তু শোবিজ সংশ্লিষ্টরা আশা প্রকাশ করছেন, অচিরেই দর্শকদের বিরাট অংশ ওয়েব ফিল্ম দেখতে হুমড়ি খেয়ে পড়বেন অনলাইনে। কারণ তাদের প্রিয় সব অভিনেতা বা অভিনেত্রীরা ঝুঁকে পড়েছেন ওয়েব ফিল্মের দিকে। তেমনই মিডিয়ার পরিচিত মুখ জয়, অরিন ও আফফান মিতুল একসাথে কাজ করেছেন নতুন একটি  ওয়েব ফিল্মে। তিনজনই প্রথমবারের মতো জুটি বাঁধতে যাচ্ছেন। ওয়েব ফিল্মের নাম “সাইকো লাভার”। একটি সত্য ঘটনা অবলম্বনে নির্মিত হয়েছে । পরিচালনা করেছেন সবুজ খান। মঙ্গলবার (১৫ সেপ্টেম্বর) সম্পন্ন হয়েছে এর শুটিং পর্ব।

আফফান মিতুল বলেন, সাইকোর চরিত্রে প্রথমবার অভিনয় করলাম। নাম ভূমিকায় যেহেতু অভিনয় করেছি দায়িত্বটা বেশী ছিলো আমার ঘাড়ে। নায়িকা অরিনের সঙ্গে একটা দৃশ্যে অভিনয় করতে গিয়ে ভীষণভাবে আহত হই, কান দিয়ে রক্ত পড়ে কিছুক্ষণ। তবুও শুটিং করেছি। আমার অভিনয় জীবনে এখন পর্যন্ত এটা উল্লেখযোগ্য কাজ হয়ে থাকবে। অরিন ও জয় চৌধুরী খুব সহযোগিতা করেছেন আমাকে। আসলে আমরা ৩ জনই ফিল্মের, তাই মনে হয়েছে মূলধারার বাণিজ্যিক চলচ্চিত্রে অভিনয় করছি, ওয়েব ফিল্মে নয়।

জয় চোধুরী বলেন, ওটিটি সাইডে আমার প্রথম কাজ, ছোট ভাই আফফান মিতুলের রিকুয়েস্টেই কাজটা করা। আর গল্পটা রিয়েল স্ট্রোরি বেইজ তাই ভালো লেগেছে। বন্ধুত্বর মধ্যে কেও সাইকো থাকলে তখন একটি দুর্ঘটনায় কতগুলো জীবন নষ্ট হয় তাই এটাতে দেখা যাবে। আর ছেলে মেয়ে আসলে কখনো বন্ধু হয় না, কোন কোন ভালোলাগা বা ভালোবাসার টান থাকে। স্বার্থ ছাড়া বন্ধুত্ব হয় না। আসা করি বর্তমান যুগের বন্ধুদের অনেক কিছু শেখার আছে।

অরিন বলেন, ভালো গল্পে কাজ করার ক্ষেত্রে নাটক কিংবা ওয়েব ফিল্ম বিষয় না। আমি যখন “সাইকো লাভার”–এর গল্প শুনি, প্রথমবারেই ভালো লেগে যায়। আমার কাছে মনে হয়, কাজটি ঠিকঠাকমতো করতে পারলে দর্শকেরও ভালো লাগবে। ইদানীং গড়পড়তা অনেক গল্প শোনা হচ্ছে। এর মধ্যে হঠাৎ এই গল্পটা ভিন্ন মনে হয়েছে।

0 Shares

পোস্ট টি সম্পর্কে আপনার মতামত জানানঃ