পাটকেলঘাটয় মাসে প্রায় ৪ লক্ষ টাকা চাঁদা দিতে হয় ইউনিয়ন শ্রমিকদের

0
225

খুলনা প্রতিনিধিঃ সাতক্ষীরার পাটকেলঘাটায় মাসে প্রায় ৪ লক্ষ টাকা চাঁদা দিতে হয় ইউনিয়ন শ্রমিকদের।পাটকেলঘাটা ওভার ব্রীজের উপরে ও নিচে মিলে চার রাস্তায় প্রায় চার থেকে পাঁচ শত মটর ভ্যান,নছিমন,করিমন,ইজিবাইক,মাহিন্দ্রা চলাচল করে।ইউনিয়ন শ্রমিকদের প্রতিদিন ১০/১৫ টাকা করে চাঁদা দিতে হয় বলে জানান চালকরা। তারা আরও জানান আমরা গরীব মানুষ ভ্যান,নছিমন,করিমন,ইজিবাইক,মাহিন্দ্রা চালিয়ে জীবন জীবিকা নির্বাহ করি,আমাদের মুখের দিকে তাকিয়ে আছে আমাদের পরিবার।অনেকের এই সামান্য উপার্জনের টাকা দিয়ে চাল কেনা,কাচা বাজার করা,ছেলে মেয়ে, ছোট ভাই বোনদের পড়াশুনা অনেকের সংসারে ঔষধ কেনা,সব মিলিয়ে অনেক টাকা মাসে খরচ হয় একটা পরিবারে।তার ভিতর যদি মাসে সাত-আট শত টাকা চাঁদা দিতে হয় তাহলে আমরা কি ভাবে চলবো আর আমাদের পরিবারকে কেমন করে চালাবো।আমরা ভিক্ষা ,চুরি,মাদক ব্যবসা, সন্ত্রাস, কিংবা চোরা কারবারীও করিনা।আমরা গায়ের ঘাম পায়ে ফেলে রক্ত পানি করে উপার্জন করি।সে উপার্জন থেকে আমাদের চাঁদা দিয়ে চলতে হবে।আমরা স্বাধীন বাংলার মানুষ হয়েও পরাধীনতায় চলতে হয়।এই চাঁদা না দেওয়াতে গত কয় একদিন মটর ভ্যান,নসিমন,করিমন,ইজিবাইক,মাহিন্দ্রা বন্ধ করে দিয়েছে ইউনিয়ন শ্রমিক সদস্যরা।আমাদের উপার্জন বন্ধ করে দিয়েছে আমরা সংসার চালাতে পারছি না।আমরা এ গুলা চালাতে না পারলে অভাবের সংসার কি করে চলবে।আমাদের প্রায় ঘরে সমিতি আছে সপ্তায় সেখানে ও টাকা দিতে হয়।

এ বিষায় পাটকেলঘাটা ইউনিয়ন শ্রমিক সভাপতি ইউনুছ আলীর নাম্বারে ফোন দিয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন আমাদের মাসে ৮০০ টাকা চাঁদা নিতে হয়,আমাদের ইউনিয়ন শ্রমিকদের ৪ টা খাদ আছে সেখানে খরচ করতে হয়,তাদের সুবিধা অসুবিধা দেখতে হয়।আরও জানান ওভার ব্রীজের নিচ দিয়ে একটা ফিটার রাস্তা গেছে পাটকেলঘাটা থেকে তালা ও খলিশখালী,দলুয়া জেঠুয়া বাজার কয়দিন আগে এই নিয়ে মারামারি হয় সেটা নিয়ে গতকাল পাটকেলঘাটা থানায় বসাবসির মাধ্যমে একটা সমাধান হয়।তবে আমাদের ইউনিয়ন শ্রমিকদের এই ৮০০ টাকা চাঁদা দিতে হয় আবার জেঠুয়া বাজারে সিরিয়াল ম্যান আছে তাকে ও একটা বেতন দিতে হয় চালকদের।

তারা মাননীয় প্রধান মন্ত্রী ও মানবাতার মা জননেত্রী শেখ হাসিনা,সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের
এবং সাতক্ষীরা -১ তালা কলোরোয়া মাননীয় প্রধান মন্ত্রীর আস্থাভাজন জাতীয় সংসদ সদস্য জনাব মুস্তফা লুৎফুল্লাহসহ প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছে।

এ বিষায় পাটকেলঘাটা ওসি স্যারের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন এরকম কোন সংবাদ আমাদের কাছে আসে নাই।আসলে তার ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

শাহরিয়ার কবির / দৈনিক সংবাদপত্র 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here