পাইকগাছায় মহামারি করোনার মারাত্মক প্রাদুর্ভাব ৬৭ দিনে আক্রান্ত ৩৭৬, মৃত্যু ১৩

0
29
0 Shares

পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধিঃ খুলনার পাইকগাছায় মহামারি করোনার মারাত্মক প্রাদুর্ভাব দেখা দিয়েছে। গত ৬৭ দিনে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ডাক্তার, নার্সসহ ১ হাজর ২০ জনের নমুনা পরীক্ষায় পজিটিভ ধরা পড়েছে ৩৭৬ জন। মারা গেছে ১৩ জন। সর্দি জ্বর হলেই করোনা আতংক ভুগছে পাইকগাছাবাসী। করোনা মুখপাত্র চিকিৎসক ইফতেখার বিন রাজ্জাক জানান, গত মে মাস থেকে ৬ই জুলাই পর্যন্ত ১ হাজার ২০ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। যার মধ্যে পজিটিভ এসেছে ৩৭৬ জন। মারা গেছে ১৩ জন।

সুস্থ্য হয়েছে ১৪৪ ও আইসোলেশনে রয়েছে ৫৯ জন। এর মধ্য স্বাস্থ কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ৫ ও নার্স ৪ জন।এম্বুলেন্স চালক, টিকিট মাষ্টার ও ক্লিনারসহ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মোট ২১জন করোনা পজিটিভ। দিন যতই যাচ্ছে ততই এর সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। গত ৬৭ দিনের মে মাসে ৯০ জনের নমুনা পরীক্ষায় ২৪ জন, জুন মাসে ৬৯৪ জনের মধ্য ৩৩৬ জন, এবং ৬ই জুলাই পর্যন্ত ২৩৬ জনের মধ্য ১১৩ জনের করোনা পজিটিভ সনাক্ত হয়। এদিকে যেমন তেমন সর্দি জ্বর হলেই করোনা আংতকে ভুগছে সবাই।

ডাক্তারদের কাছ থেকে আগের মত চিকিৎসা সেবা পাচ্ছেনা রোগীরা। কাছে ভিড়ছে না অতি আপন জনেরাও। উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা নীতিশ চন্দ্র গোলদার জানান, সাধ্যমত সেবা দিয়ে যাচ্ছি কিন্ত আমিসহ ১২ জন ডাক্তার যার মধ্য খুলনা করোনা হাসপাতালে নেয়া হয়েছে ৫ জন। ইচ্ছা থাকার পরও শতভাগ সেবা দেয়া সম্ভব হচ্ছে না। উপজেলা নির্বাহী অফিসার এবিএম খালিদ হোসেন সিদ্দিকী বলেন, করোনা মোকা বেলায় প্রশাসনের পক্ষ থেকে সর্বোচ্চ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।

করোনার দ্বিতীয় ঢেউ লাগার সাথে সাথে উপজেলা পরিষদের পক্ষ থেকে ৬০ লাখ টাকায় হাইফ্লোনজাল ক্যানালা ও ১২টি বড় বড় অক্সিজেন সিলিন্ডার ব্যাংকের ব্যবস্থা করা হয়েছে। যাতে ৩-৪ দিন পর পর ২৮ হাজার টাকার অক্সিজন লাগছে।

ইমদাদুল হক 

0 Shares

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here