পাঁচবিবিতে ৩৩ হাজার কেভির সঞ্চালন লাইনে কভার পাইপ লাগিয়ে ভবন নির্মাণ

0
22
বিজ্ঞাপন

পাঁচবিবি (জয়পুরহাট) সংবাদদাতাঃ জয়পুরহাটের পাঁচবিবি উপজেলার ধরঞ্জী ইউনিয়নের হাটখোলা বাজারে পল্লী বিদ্যুতের ৩৩ হাজার কে.ভি. বিদ্যুৎ সঞ্চালন লাইনের তারে পল্লী বিদ্যুতের অনুমতি ছাড়াই কভার পাইপ লাগিয়ে ঘরের মধ্যে ঢুকিয়ে অবৈধ ভাবে ভবন নির্মাণ করেছে উপজেলার উচনা গ্রামের মৃত আফছার আলীর পুত্র আব্দুল মালেক । ফলে সোমবার সকালে সেই সঞ্চালনের লাইনের ট্রান্সমিটারের সংযোগ থেকে শর্ট সার্কিটে র কারণে নির্মানাধীন ভবনের পাশে উপজেলার শ্রীমন্তপুর গ্রামের আব্দুর রশিদের পাটের গুদামে আগুন লেগে যায়। এ সময় স্থানীয়রা ছুটে এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসায় পাট গুদামটি বড় ধরনের অগ্নিকান্ডের হাত থেকে রক্ষা পায়। এতে করে গুদামের কিছু পাট পুড়ে যায়।

তবে বিদ্যূৎ কতৃপক্ষ বলছে, বৈ-আইনী ভাবে সঞ্চালন লাইনে প্লাস্টিকের কভার তার লাগানোয় ঐ ভবন মালিকে র বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, উপজেলার ধরঞ্জী ইউনিয়নের উচনা গ্রামের মৃত আফছার আলীর পুত্র আব্দুল মালেক হাটখোলা বাজারে একটি ভবন নির্মাণ শুরু করেন। ভবনটির দ্বিতীয় তলা নির্মাণ করার সময় উপর দিয়ে যাওয়া পল্লী বিদ্যুতের ৩৩ হাজার কে.ভি. সঞ্চালন লাইন থাকায় আঃ মালেক পাঁচবিবি পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির কোন অনুমতি ছাড়াই নিজের ইচ্ছায় স্থানীয় ইলেকট্রিশিয়ান দ্বারা ৩৩ হাজার কে. ভি এর সঞ্চালন লাইনটিতে প্লাস্টিকের পাইপ লাগিয়ে ভবন নির্মাণ সম্পন্ন করেন।

বিজ্ঞাপন

এ সময় সঞ্চালন লাইনের একটি তার দ্বিতীয় তলার বেলকুনির ভিতর দিয়ে একই ভাবে পাস করেন। এ বিষয়ে ভবন মালিক আব্দুল মালেকের নিকট জানতে চাইলে তিনি বলেন, তারটি সমস্যা হওয়ার কারণে যেন বিপদ না হয় সে কারণে কভার লাগিয়েছি। এতে দূর্ঘটনা ঘটবে আমি বুঝতে পারিনি। জয়পুরহাট পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির পাঁচ বিবি জোনাল অফিসের ডিজিএম আব্দুল বারী বলেন, ৩৩ হাজার কেভির বিদ্যূৎ লাইনে প্লাস্টিকের কভার কোন কাজে আসবে না। পল্লী বিদ্যূৎ কৃর্তপক্ষের অগোচরে বে-আইনী ভাবে সে করেছে। বিষয়টি দেখার পর বিদ্যুৎ আইনে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মোঃ বাবুল হোসেন

বিজ্ঞাপন

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here