নবীগঞ্জে কোরবানির গরু নিয়ে দুশ্চিনায় কৃষক ও খামারীরা

0
35
0 Shares

নবীগঞ্জ প্রতিনিধিঃ সারাদেশ মহামারি করোনা প্রাদর্ভাব। এর মধ্যে সামনে আসছে মুসলমানদের বড় ধর্মীয় উৎসব ঈদুল আযহা। যাদের সামার্থ আছে ইসলামি নিয়ম অনুযায়ী তারা পশু জবাই করে পবিত্র ঈদুল আযহা পালন করবেন। এ উপলক্ষে সব জেলা দেই কৃষক খামারীরা পরিশ্রম করে কোরবানির পশু মোটা তাজা করতে সময় ব্যয় করছেন। কিন্ত এই মহামারি দিনে দুশ্চিন্তায় দিন কাটছে তাদের। চলছে সারাদেশে লকডাউন ঘর থেকে বেড় হতে পারছে না মানুষ সরকারী নির্দশনায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে পশু বিক্রির হাট বসলেও জনমনে আতঙ্গে ক্রেতাদের সংখ্যা কম।

আর এই চলমান লকডাউন আরো বাড়ানোর কারণে দুশ্চিনায় কৃষক ও খামারীর। শহিদুল ইসলাম নামের এক কৃষক জানান আমার পাঁচটি গরু রয়েছে দুই বছর লালন পালন করে এই বছর বিক্রি করতে গরুকে প্রস্তুত করে ছিলাম কিন্ত চলমান লক ডাউনে অনেকেই কোরবানি দিতে আগ্রহী না এখন গরু গুলোকে কি করব দুশ্চিনায় আছি। সাবান মিয়া নামের আরেক গরু ব্যবসায়ী বলেন দীর্ঘ বছর ধরে আমার ষাড় দুটি বড় করেছি ওর তলে আমার অনেক টাকা খরছ হইছে ইচ্ছে ছিল কোরবানি ঈদে ভাল দামে বেচতে পারব

কিন্ত করোনা মহামারির কারনে ষাড় দুটি বেচতে পারব কিনা সন্দেহে আছি। বর্তমানে করোনা ভাইরাসের কারণে এ উপজেলার হাট বাজার গুলোতে মাংসের চাহিদা তুলনামুলক ভাবে কম। চলতি বছরে ঈদুল আযহায় করোনা ভাইরাসের আতঙ্কে গরু হাটে বিক্রি করা ও বাজার দাম নিয়ে হতাশ হয়ে পড়েছে উপজেলার বিভিন্ন গ্রামের কৃষক ও খামারীরা।

শাহরিয়ার আহমেদ শাওন

0 Shares

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here