নওগাঁর মান্দা উপজেলা পরিষদ উপ-নির্বাচনে এমদাদ মোল্লা বিজয়ী

0
36
নওগাঁর মান্দা উপজেলা পরিষদ উপ-নির্বাচনে এমদাদ মোল্লা বিজয়ী
নওগাঁর মান্দা উপজেলা পরিষদ উপ-নির্বাচনে এমদাদ মোল্লা বিজয়ী
0 Shares

নওগাঁ প্রতিনিধিঃ নওগাঁ মান্দা উপজেলা পরিষদের উপ-নির্বাচন নৌকা প্রতীকে আলহাজ্ব মোল্লা এমদাদুল হক ৬৫ হাজার ১শ’ ১১ টি ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭ টার দিকে মান্দা উপজেলা সহকারি রিটার্নিং ও নির্বাচন কর্মকর্তা আব্দুর রশিদ বেসরকারি ভাবে এ ফলাফল ঘোষণা করেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ধানের শীষ প্রতীকে মকলেছুর রহমান মকে ভোট বর্জনের পরেও পেয়েছেন ১৪ হাজার ৯১ টি ভোট।

মঙ্গলবার সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত ভোটাররা তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করে। জানা গেছে, উপ জেলার ১৪ ইউনিয়নের মোট ভোট কেন্দ্রের সংখ্যা ১০৮টি। এ নির্বাচনে ৩ লাখ ৯৭৬ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার রয়েছেন ১ লাখ ৪৮ হাজার ৬৯৮ জন ও নারী ভোটার সংখ্যা ১ লাখ ৫২ হাজার ২৭৮ জন। ভোটগ্রহণ নির্বিঘ্নে করতে মাঠ পর্যায়ে বিজিবি, র‌্যাব, পুলিশ সহ

চারস্তরের নিরাপত্তা বাহিনী নিয়োজিত ছিল। এ ছাড়া ৫জন ম্যাজিস্ট্রটসহ পুলিশের ৭টি মোবাইল টিম ভোটের মাঠ তদারকি করেন। আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকে আলহাজ্ব মোল্লা এমদাদুল হক বলেন, এলাকার উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে এবং এলাকার উন্নয়ন করতে এলাকাবাসী আমাকে ভোট দিয়ে বিজয়ী করেছে। এলাকার রাস্তা ঘাট, স্কুল কলেজের উন্নয়ন এবং সুবিধা বঞ্চিতদের মাঝে বিভিন্ন ধরনের ভাতা প্রদান করবো।

তবে বিএনপির নেতাকর্মী, পোলিং এজেন্ট ও ভোটারদের কোন ধরনের বাঁধা প্রদান করা হয়নি। অপর দিকে, নওগাঁ মান্দা উপজেলা পরিষদের উপ-নির্বাচনে ভোট বর্জনের ঘোষণা দিয়েছে বিএনপি প্রার্থী ধানের শীষ প্রতীকে মকলেছুর রহমান মকে। মঙ্গলবার দুপুর ১ টার দিকে মান্দা উপজেলা বিএনপির দলীয় কার্যালয়ে দলের সিদ্ধান্তে তিনি সংবাদ সম্মেলন করে ভোট বর্জনের ঘোষণা দেন।

তিনি অভিযোগ করে বলেন, বিএনপির পোলিং এজেন্টদের সকাল থেকে ভোট কেন্দ্রে প্রবেশ করতে দেয়া হয়নি। উপজেলা সহকারি রিটার্নিং ও নির্বাচন কর্মকর্তাকে বিষয়টি অবগত করা হলেও কোন পদক্ষেপ তিনি গ্রহন করা হয়নি। প্রশাসনের সহায়তায় এ প্রহসন নির্বাচন করা হচ্ছে। যা আমরা মানিনা। আমার নেতাকর্মীসহ সাধারন ভোটারদের অত্যাচার ও নির্যাতন করায় আমি ব্যাথিত এবং দুঃখিত।

তিনি বলেন, আমাদের দাবী নির্বাচন বাতিল করে আগামীতে নতুন করে নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করা হোক। যদি দাবী পুরন করতে ব্যার্থ হয় তাহলে নেতাকর্মীদের নিয়ে দাবী পুরন করতে রাস্তার নেমে আন্দোলন সংগ্রাম করতে বাধ্য হবো। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, নওগাঁ জেলা বিএনপির সদস্য ডা. একরামুল বারী টিপু ও মনোজিত কুমার সরকার, মান্দা উপজেলা যুগ্ম আহ্বায়ক মোজাম্মেল হক মকুল,

সদস্য অধ্যক্ষ আব্দুল মতিন সহ অন্যান্য নেতাকর্মী। উল্লেখ্য, গত ৬ জুলাই এ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা সরদার জসিম উদ্দিন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেন। এরপর পদটি শুন্য ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন।

মাহবুবুজ্জামান সেতু / দৈনিক সংবাদপত্র 

0 Shares

পোস্ট টি সম্পর্কে আপনার মতামত জানানঃ