নওগাঁর মান্দায় দেশীয় মদসহ আটক-২ জন

0
34
0 Shares

নওগাঁ প্রতিনিধিঃ নওগাঁর মান্দায় দেশীয় ১০গ্যালন জারকিন মদসহ এক নারীসহ দুইজনকে আটক করে পুলিশে দিয়েছে স্থানীয় এলাকাবাসী। সোমবার (১৯ই জুলাই) সকাল ১০টার দিকে উপজেলার ভারশোঁ ইউনিয়নের ভারশোঁ গ্রামের ঋষিপাড়া থেকে তাদের আটক করা হয়। আটকরা হলেন, ঋষিপাড়ার পরম চন্দ্রের ছেলে দুলু (২৭) ও বিনয় চন্দ্রের স্ত্রী রুপতি (২৪)। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ভারশোঁ গ্রামের ঋষিপাড়ায় দীর্ঘদিন থেকে দেশী য় মদ তৈরী করে খাওয়ার পাশাপাশি তারা ব্যবসা করে আসছিল।

ইউনিয়ন পরিষদ থেকে একাধিকবার তাদের মদ তৈরী ও ব্যবসা না করার জন্য সর্তক করা হয়। কিন্তু তারপরও তারা গোপনে মদ তৈরী ও বিক্রি করে আসছিল। এতে যুব সমাজ ধ্বংসের দিকে এগিয়ে যাচ্ছিল। ঈদুল আযহা কে সামনে রেখে ঋষিপাড়ার কয়েকজন গোপনে মদ তৈরী করে ব্যবসা করার প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছিল। সোমবার সকাল ১০ টার দিকে স্থানীয় সমাজসেবী আব্দুস সোবহানের নেতৃত্বে গ্রাম পুলিশ ইয়াছিন আলী, আব্দুস সালাম, লোকমান আলী, সচেতন ব্যক্তি হোসেন আলী, আশরাফুল ইসলাম, একরামুল হক,

আব্দুর রাজ্জাক, মাহাবুর ও ফজলুর রহমান বাবুলসহ ১২-১৫ জন ঋষিপাড়ায় মাদক বিরোধী অভিযান পরি চালনা করে। অভিযানের সময় মাটির নিচ থেকে ১০ জারকিন (প্রায় ২ মন) দেশীয় মদ উদ্ধারসহ দুলু ও রুপতি নামে দুইজনকে আটক করে থানা পুলিশে সোপর্দ করা হয়। অভিযানের সময় মাদক সম্রাগ্রী ডলিসহ কয়েকজন পালিয়ে যায়। স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান সুমন বলেন, ঋষিপাড়ার বাসীন্দাদের মাদক ছাড়তে একাধিকবার সচেতন ও সর্তক করা হয়েছে। তারা মাদক ছাড়তে কিছু শর্ত দিয়েছিল।

শর্ত অনুযায়ী সরকারের পক্ষ থেকে ১০ টাকা কেজির চালের কার্ড, বয়স্ক ও বিধবা ভাতা, সাপলাই পানির ব্যবস্থা ও মন্দির নির্মান করে দেওয়া হয়। কিন্তু তারপরও তারা গোপনে মদ তৈরী ও বিক্রি করে আসছিল। যুব সমাজকে রক্ষা করতে থানা থেকে ওই পাড়ায় নিয়মিত অভিযান করা দরকার বলে মনে করেন তিনি। মান্দা থানার ভার প্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহিনুর রহমান বলেন, একাবাসী দুইজনকে আটক করে পুলিশের নিকট সোপর্দ করে। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

মাহবুবুজ্জামান সেতু

0 Shares

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here