জুটি বাঁধলেন ট্রান্সজেন্ডার নুসরাত মৌ – সুমন

0
101

নাটকে অভিনয় করলেন ট্রান্সজেন্ডার নারী নুসরাত মৌ। তার বিপরীতে দেখা যাবে এম এ সালাম সুমনকে। এ বাবুল পরিচালিত ‘ডেলিভারি ম্যান’ নাটকে দেখা যাবে তাকে। এটি রচনা করেছেন বরজাহান হোসেন। এরই মধ্যে নাটকটির দৃশ্যধারণের কাজ শেষ হয়েছে।

মৌ বলেন, আমরা সমাজের অবহেলিত একটা গোষ্ঠি। এই জীবনটাতে অনেক বৈষম্যের শিকার হতে হয়েছে। যেখানে গিয়েছি সেখানে আমাকে এভাবে শিকার হতে হয়েছে। তারপর ও আমাকে বারবার প্রমাণ করতে হয়েছে, মানুষ একজন ট্রান্সজেন্ডার নারী সম্পর্কে যেসব ধারনা পোষণ করেন তা ঠিক নয়। এই প্রথম কোথাও কাজ করতে গিয়ে এত বেশি কমফোর্ট ফিল করেছি, সম্মানের সঙ্গে ইক্যুয়াল ট্রিট পেয়েছি। কারন আপনারা দেখবেন আমাদের অনেকে মিডিয়াতে কাজ করাসুযোগ থাকে না। আমাকে এরা সুযোগ দিয়েছে। আমাদের ও প্রতিভা আছে , যদি এভাবে সুযোগ করে দিতো আমরাও একদিন মাথা উচু করে দাড়াতে পারবো। তাহলে আমাদের আর কোথাও গিয়ে হাত বাড়াতে হবে না।

পরিচালক বলেন, আমি সব সময় চেষ্টা করি নতুনদের নিয়ে কাজ করতে। কারন আমি অনেক স্বাচ্ছ্যন্দবোধ করি। আমার এই নাটকে তৃতীয় লিঙ্গের নুসরাত মৌকে নিয়ে কাজ করলাম। খোনে এম এ সালাম সুমনের বিপরীতে নায়িকা হিসাবে রুল করালাম। আশা করছি ওদের জুটির এই নাটকটি আপনাদের সবার ভালো লাগবে।
গল্পে দেখা যাবে, ডেলিভারি ম্যান রমজান। খাবার/পোশাক বিভিন্ন জিনিস ডেলিভারী চাকরীটা কয়েক বছরের হলেও সংসার জীবন তার মাত্র এক বছরের। ঘুম থেকে খুব সকালে উঠে চলে যায়। ফিরতে হয় রাতে। সারাদিন বিভিন্ন বাড়ি/অফিস/মহল্লায় ডেলিভারির কাজে ব্যস্ত থাকতে হয়। স্ত্রী, সংসার নিয়ে স্বপ্নটা তার আকাশছোয়া। কিন্তু সাধ্যটা একেবারেই নগণ্য। প্রতিদিন ডেলিভারি দিয়ে কমিশনের যে টাকাটা আসে তা দিয়ে সংসার চালাতেই হিমসিম খেতে হয়। ঝড়-বৃষ্টির তোয়াক্কা না করেই দায়িত্ব পালন করে চলে রমজান। দুপুরের খাবারটা প্রায়ই রাস্তার পাশে, গাছের নিচে কিংবা কোন মার্কেটের বারান্দায় বসে খেতে হয় তাকে। দেখা যায় রোস্ট, মুরগী, পোলাওসহ দামী খাবার ডেলিভারি দিয়ে এসেছে অথচ সাইকেল থামিয়ে ব্যাগ থেকে নিজের খাবারের বাটিটা যখন বের করে খেতে বসে তখন দেখা যায় খাবারের বাটিতে ডিম ভাজি, আলু ভর্তা টাইপের সস্তা খাবার।

কিন্তু এ নিয়ে রমজানের কোন আফসোস নেই। নিজে খারাপ খাবার খেলেও দামী খাবারগুলো সময়মতো গ্রাহকের কাছে পৌছে দিতে পারাই তার প্রশান্তি। শুধু খাবার না অন্যান্য জিনিসপত্রও দ্বায়ীত্ব নিয়ে নিজের মত পৌছে দেয় কাস্ট্রমারের কাছে রমজান। পরিশ্রমী এবং চরম সৎ মানুষ রমজান। স্ত্রী সুরমাকে প্রচন্ড ভালোবাসে রমজান। স্বামীর প্রতিও ভালোবাসা কম নেই রমজানের স্ত্রী সুরমার। সকালে ডেলিভারি চাকরীতে যাবার পর থেকেই সারাদিনে বেশ কয়েকবার খোজ নেয় স্বামীর। কি করছে, খাওয়া দাওয়া হলো কি না, ক্ষনে ক্ষনে রমজানও ফোন করে খোঁজ নেই স্ত্রীর। সারাদিন অপেক্ষা করে স্বামী কখন আসবে, রাতের খাবারটা প্রতিদিনই তারা একসাথে খায়। এরকমই একটি গল্পে নির্মিত হয়েছে নাটকটি।

নাটকটির অন্যান্য চরিত্রে অভিনয় করেছেন – এম এ সালাম সুমন, সাবরিনা সুইটি, রজনীগন্ধা , ইমরান হাসু প্রমুখ।

জানাগেছে, নাটকটি ২ অক্টোবর রাত ১০টায় একুশে টেলিভিশনে প্রচার হবে।

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here