জগন্নাথপুরে জব্দকৃত ৩২ হাজার ঘনফুট বালু নিলামে বিক্রি করলেন ভ্রাম্যমাণ আদালত

0
77

জগন্নাথপুর প্রতিনিধিঃ সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার রাণীগঞ্জ কুশিয়ারা নদীতে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান চালানো হয়েছে। ২৩ নভেম্বর সোমবার জগন্নাথপুর উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ ইয়াসির আরাফাত এর নেতৃত্বে এবং থানার এসআই রফিকুল ইসলাম সহ পুলিশ দল ও রাণী গঞ্জ ইউপি তহশিলদার হাফিজ উদ্দিনের সহযোগিতায় এ অভিযান চালানো হয়। রাণীগঞ্জ জেটি ঘাটে প্রায় কয়েক ঘন্টা ব্যাপী অভিযানে অবৈধ ড্রেজার মেশিন সহ ৩টি নৌকা ভর্তি বালু, পাইপ লাইন ও স্টক থাকা বিপুল পরিমাণ বালু জব্দ করা হয়।

এ সময় নৌকায় থাকা কয়েকজন শ্রমিক থাকলেও মালিক পাওয়া যায়নি। পরে জগন্নাথপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মেহেদী হাসান এর উপস্থিতিতে এলাকায় মাইকিং করে প্রকাশ্যে নিলামের মাধ্যমে ৩২ হাজার ঘনফুট বালু ১ লাখ ২০ হাজার টাকায় বিক্রি করা হয়। জব্দকৃত ৬টি মেশিন ভাংচুর করা হয়েছে। এর মধ্যে ৩টি মেশিন নদীতে ফেলে দেয়া হয়। এছাড়া জব্দকৃত প্রায় শতাধিক প্লাস্টিকের পাইপ পুড়িয়ে ধংস করা হয়েছে। তা দেখতে নদী পাড়ে শতশত উৎসুক জনতা ভীড় জমান। 

গত কয়েক দিন আগেও অবৈধ ড্রেজার মেশিন সহ কয়েকটি বালু ভর্তি নৌকা আটক করেন স্থানীয় তহশিল দার। যদিও রাণীগঞ্জ বাজারের সড়কের উপর দিয়ে দীর্ঘ পাইপ লাইন বসিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বালু ব্যবসা করে আসছে একটি সিন্ডিকেট। তারা জগন্নাথপুর সহ দেশের অন্যান্য অঞ্চল থেকে বালু আমদানি করে রাণীগঞ্জ এলাকার বিভিন্ন বাড়ি ও প্রতিষ্ঠানে বিক্রি করে আসছে। বড় বড় স্টিলের নৌকাতে বোমা মেশিন বসিয়ে দীর্ঘ পাইপ লাইনের মাধ্যমে এসব বালু বিক্রি করা হয়।

এসবের সাথে বড় বড় রাগব বোয়ালরা জড়িত থাকলেও তারা রয়েছেন ধরা ছোয়ার বাইরে। তাদেরকে প্রকাশ্যে কাউকে পাওয়া যায় না। তারা কৌশলে চালিয়ে যাচ্ছেন বালু ব্যবসা। তবে বেশ কিছু দিন আগে আনছার মিয়া নামের এক ব্যক্তি রাণীগঞ্জে বালু ব্যবসা নিয়ে জগন্নাথপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নিকট লিখিত অভিযোগ করেন। এরপর থেকে একের পর এক চলছে অভিযান।

নিজস্ব প্রতিবেদক / দৈনিক সংবাদপত্র 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here