ক্ষতবিক্ষত সড়কটি পূর্ণাঙ্গ সংস্কারের আশ্বাস দিলেন ইউপি চেয়ারম্যান

0
66

হাটহাজারী (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধিঃ চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে দীর্ঘদিন ধরে সংস্কারের অভাবে ক্ষতবিক্ষত হয়ে পরে আছে ফতেপুর ইউনিয়ন থেকে পৌরসভা ও মেখল ইউনিয়ন বাসীর যাতায়াত ব্যবস্থা বাঁচামিঞা তালুকদার সড়ক। যান চলাচলের অনুপযোগী হয়ে অসহনীয় পর্যায়ে পৌঁছেছে জন দুর্ভোগ। উপজেলার ফতেপুর ইউনিয় নের ৭নং ওয়ার্ডের মাইজপাট্টি এলাকার আলাওল সড়ক থেকে বিভিন্ন ইউনিয়নে সংযুক্ত হয়েছে বেহাল দশা এই সড়কটি। এতে করে এলাকাবাসীকে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।

খানাখন্দে ভরা এই সড়ক দিয়ে প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষ যাতায়াত করলেও বিগত ১৪ বছর ধরে সড়কটি এভাবেই পড়ে রয়েছে। বর্ষার মৌসুম সহ সারাবছর ধরে তাদের দুর্ভোগের যেন শেষ নেই। এই সড়ক দিয়ে যাতা য়াত করতে গিয়ে সুস্থ মানুষ অসুস্থ হয়ে যায় আর অসুস্থ মানুষের কি বা বলার আছে। সড়কটি এলজিইডির অন্তর্ভুক্ত হয়েছে এখন যতদ্রুত সম্ভব জনসাধারণের দুর্ভোগ লাঘব করে আর সি সি বা কার্পেটিং এর মাধ্যমে পূর্ণাঙ্গ সংস্কারের দাবী করে স্থানীয়রা।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, খানাখন্দে ভরপুর সড়কটি ইটের সলিন হওয়ায় অধিকাংশ স্থানে মাটির সাথে মিশে আছে সলিনের ইট গুলো। আবার কোথাও কোথাও ইট উঠে গিয়ে সলিনের অস্তিত্বহীন হয়ে পড়ে আছে। দেখে মনে হয় ১৪ বছর আগেকার দিনে কোনরকম দায়সারাভাবে কাজ করে জনগণকে সান্তনা দিয়ে গেছে স্থানীয় দের সাথে কথা বলে জানা যায়, হাটহাজারী-অক্সিজেন মহাসড়ক নির্মাণ হয়নি সেই সময় বাঁচামিঞা তালুকদার সড়ক হয়ে যান চলাচল করতো।

এমনকি বর্তমান সময়ে যখন মহাসড়কে যানজট সৃষ্টি হয় তখন মহাসড়কে রূপান্তরিত হয় এই ক্ষতবিক্ষত সড়কটি। পায়ে হেটে এই সড়কে চলাচল করতে গিয়ে হোচট খেয়ে কয়েকজন আহত হয়েছে বলেও জানান স্থানীয়রা। এবিষয়ে ফতেপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এডভোকেট মোহাম্মদ শামীম বলেন, সড়কটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ সড়ক, দীর্ঘদিন জরাজীর্ণ হয়ে পড়ে আছে, যেখানে খুব বেশি সমস্যা দেখা গেছে সেখানে দুই দফায় দুই লাখ টাকার কাজ করা হয়েছে।

সড়কটি এলজিইডির আইডি ভুক্ত করা হয়েছে এবং পূর্ণাঙ্গ সংস্কার করতে সর্বোচ্চ চেষ্টা করবেন বলেও জানান তিনি। তিনি আরো বলেন, এলাকাবাসী আমার মাধ্যমে একটি আবেদন করলে আমি সহ তাদের সাথে সড়কটি সংস্কার করতে সর্বোচ্চ চেষ্টা করবো।

মো. সাহাবুদ্দীন সাইফ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here