এস এস সি পরীক্ষার্থীদের উদ্দেশ্য করে চসিক মেয়রের পরামর্শ।

0
181
0 Shares


চট্টগ্রাম প্রতিনিধিঃ আশপাশের কারও কাছ থেকে সহায়তা পাওয়া যাবে- এমন আশায় পরীক্ষার হলে না যাওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন। পাঠানটুলী সিটি করপোরেশন বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ের এসএসসি পরীক্ষার্থীদের বিদায় সংবর্ধনা, বার্ষিক ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে মেয়র এ কথা বলেন।
চসিকের প্রধান শিক্ষা কর্মকর্তা সুমন বড়ুয়ার সভাপতিত্বে সভায় উদ্বোধক ছিলেন স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোহাম্মদ আবদুল কাদের। অনুষ্ঠানে প্রধান শিক্ষক নেজামুল হক বিদ্যালয়ের বার্ষিক প্রতিবেদন উপস্থাপন করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা জাহেদ আহমদ, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী ঝুলন কুমার দাশ, রাজনীতিক আবদুর রশীদ লোকমান, অভিভাবক সদস্য সাঈদুল আলম বুলবুল, হালিমা বেগমসহ শিক্ষক, শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ। মেয়র বলেন, নিজের ওপর শতভাগ বিশ্বাস রাখাই শ্রেয়। এর আগে তোমরা পিএসসি, জেএসসি এবং নির্বাচনী পরীক্ষায় সফল হয়ে এ পর্যায়ে এসেছো। তাই চূড়ান্ত পরীক্ষায় তুমি পারবে এবং তোমাকে পারতেই হবে। যেকোনো পরীক্ষা হচ্ছে মূল্যায়নের একমাত্র পদ্ধতি। শিক্ষা ক্ষেত্রে একজন শিক্ষার্থীর জন্য এসএসসি পরীক্ষা হচ্ছে জীবনের প্রথম মাইলফলক। এই পরীক্ষার মাধ্যমে দীর্ঘ ১০ বছরের শিক্ষাজীবনের যাচাই-বাছাই হয়। এর মধ্য দিয়ে শুরু হয় উচ্চ শিক্ষার প্রথম ধাপ।এমনকি এসএসসি পরীক্ষা জীবনের লক্ষ্য স্থির করার পথ। এখন পরীক্ষার মধ্যে ব্যাপক পরিবর্তন আনা হয়েছে। তাই এখনকার পরীক্ষার্থীরা অনেক সৌভাগ্যবান। তারা সৃজনশীল পদ্ধতিতে পরীক্ষা দিচ্ছে। এতে শিক্ষা গ্রহণে
পুরনো নীতিতে কষ্ট করতে হচ্ছে না। অল্প সময়ে বেশি শেখা সম্ভব লেখাপড়ায় বেশি মনোযোগী হয়ে চিন্তাশক্তির বিকাশ ঘটিয়ে ভালো ফলাফল করা সম্ভব বলে মেয়র উল্লেখ করেন। মেয়র বলেন, এসএসসি পরীক্ষা শুরু হতে আর মাত্র কয়েক দিন বাকি। এর মধ্যে সব পরীক্ষার্থী তাদের প্রস্তুতি শেষ করে নিয়েছে। তাই আর যেটুকু সময় আছে, তাতে নতুন করে কোনো কিছু না পড়া, না শেখাই ভালো। পুরনো যা পড়া হয়েছে, বারবার ঝালাই করা উচিত। তিনি বলেন, মনের সাহস যেকোনো
ব্যাপারে একটা ইতিবাচক প্রভাব ফেলে। এর জন্য মেয়র কয়েকটি বিষয়ে অধিকতর গুরুত্ব দিতে পরীক্ষার্থীদের পরামর্শ দেন। তিনি বলেন পরীক্ষার প্রথম দিন প্রত্যেক পরীক্ষার্থীকে পরীক্ষা শুরুর অন্তত এক ঘণ্টা আগে পরীক্ষা হলে পৌঁছার চেষ্টা করতে হবে। এছাড়া বাড়ি থেকে পরীক্ষা হলের উদ্দেশ্যে রওনা হওয়ার আগে দরকারি জিনিসপত্র বিশেষ করে প্রবেশপত্র, রেজিস্ট্রেশন কার্ড, কলম, পেনসিল, ঘড়ি ইত্যাদি সঙ্গে আছে কিনা তা দেখে নিতে হবে।

মোহাম্মদ জিপন উদ্দিন / দৈনিক সংবাদপত্র

0 Shares

পোস্ট টি সম্পর্কে আপনার মতামত জানানঃ