এমসিতে গণধর্ষণ ঘটনায় ছাত্রলীগ নেতা সাইফুর গ্রেফতার

0
93
0 Shares

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ সিলেটের (এমসি) কলেজের ছাত্রাবাসে স্বামীকে আটক রেখে স্ত্রীকে গণধর্ষণের ঘটনায় করা মামলার প্রধান আসামি ছাত্রলীগ নেতা সাইফুর রহমান কে (২৮) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। আজ রবিবার ২৭ই সেপ্টেম্বর সকাল ৮টার দিকে সুনামগঞ্জের ছাতক উপজেলার সীমান্তবর্তী এলাকা নোয়ারাই খেয়াঘাট থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। বিষয় টি নিশ্চিত করেছেন সুনামগঞ্জের পুলিশ সুপার (এসপি) মিজানুর রহমান।

তিনি জানিয়েছেন, প্রযুক্তির সহায়তায় সীমান্ত এলাকার দিকে সাইফুরের অবস্থান নিশ্চিতের পরই পুলিশের একটি দল নোয়ারাই খেয়াঘাট থেকে তাকে গ্রেফতার করে। গ্রেফতারকৃত সাইফুল সিলেটের বালাগঞ্জ উপজেলার সোনাপুরের চান্দাইপাড়ার মোঃ তাহিদ মিয়ার ছেলে। সাইফুর অস্ত্র মামলার ও আসামি। গেল শুক্রবার রাতে এমসি কলেজের ছাত্রাবাসে স্বামীকে আটকে রেখে তার সুন্দরী স্ত্রীকে গণধর্ষণ করা হয়েছে। 

বলে ছাত্রলীগ নেতা কর্মীদের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠে। খবর পেয়ে রাত সাড়ে ১০টার দিকে ছাত্রাবাস থেকে ওই স্বামী-স্ত্রীকে উদ্ধার করেছে শাহপরান থানা পুলিশ। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, শুক্রবার সন্ধ্যায় স্বামীকে নিয়ে এমসি কলেজে ঘুরতে গিয়েছিলেন ওই তরুণী। এক পর্যায়ে রাত ৮টার দিকে তরুণীর স্বামী সিগারেট খাওয়ার জন্য কলেজের গেটের বাইরে বের হন। এ সময় কলেজ ক্যাম্পাস থেকে ছাত্রলীগের ৫-৬ জন নেতাকর্মী তরুণীকে জোরপূর্বক কলেজের ছাত্রাবাসে তুলে নিয়ে যায়।

তাতে বাধা দিলে তরুণীর স্বামীকে মারধর করা হয়। সেখানে একটি রুমে স্বামীকে আটকে রেখে স্ত্রীকে গণধর্ষণ করে তারা। ওই ভুক্তভোগী দম্পতির সাথে থাকা ৯০-টি মডেলের একটি গাড়ি ও ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা ছিনিয়ে নিয়ে যায় বলে জানা গেছে। ভুক্তভোগী ওই তরুণী বর্তমানে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) চিকিৎসাধীন আছেন।

ঘটনার দিন রাত ৩টার দিকে এমসি কলেজের হোস্টেলে অভিযান চালিয়ে সাইফুর রহমানের কক্ষ থেকে একটি পাইপগান, ৪টি রামদা ও একটি চাকু, দুটি লোহার পাইপ ও প্লাসসহ বিভিন্ন জিনিস জব্দ করে পুলিশ। সাইফুর রহমানের বিরুদ্ধে হোস্টেল সুপারের বাংলো দখলেও অভিযোগ রয়েছে বলে জানান এসপি মিজানুর রহমান।এমসি কলেজের ছাত্রাবাসে ওই নারীকে গণধর্ষণের ঘটনায় ৬ ছাত্রলীগ নেতার নাম

উল্লেখসহ ৯ জনকে আসামি করে শনিবার ২৬ই সেপ্টেম্বর সকালে শাহপরান থানায় মামলা দায়ের করেন নির্যা তিত ওই নারীর স্বামী মাইদুল ইসলাম। মামলার আসামিরা হলেন- এমসি কলেজ ছাত্রলীগের নেতা সাইফুর, শাহ রনি, অর্জুন, মাহফুজ, রবিউল ও তারেক। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, আসামিরা সবাই জেলা আওয়ামীলীগের সাবেক যুব ও ক্রীড়াবিষয়ক সম্পাদক রণজিৎ সরকারের অনুসারী।

জান্নাত / দৈনিক সংবাদপত্র 

0 Shares

পোস্ট টি সম্পর্কে আপনার মতামত জানানঃ