ঈদে দর্শকনন্দিত ১০ নাটক

0
87
0 Shares

বিনোদন প্রতিবেদকঃ ছোটপর্দায় বিনোদনের মূল আকর্ষণ হলো নাটক। তাই এবার ঈদে প্রচারিত ধারাবাহিক ও একক নাটকগুলো তুলনামূলক বেশি আলোচনা হচ্ছে। এখনও চায়ের আড্ডা থেকে মোড়ে মোড়ে চলছে নাটক দেখে  দর্শক মুগ্ধ হয়েছে এই ব্যাপারটা। জানা যাচ্ছে ছোটপর্দার অভিনয় শিল্পীদের মধ্যে আফরান নিশো ঈশিতা, মোশাররফ করিম-তাসনুভা তিশা, মোশাররফ করিম-শায়লা সাবি,


আফরান নিশো-মেহজাবিন, তৌসিফ মাহবুব-মেহজাবিন, অপূর্ব-তাসনিয়া ফারিন, মিথিলা-ইরফান সাজ্জাদ, অ্যালেন শুভ্র ও মিষ্টি জাহান জুটির নাটকগুলো তুলনামূলক ভাবে বেশি দর্শক নন্দিত হয়েছে। চলুন দেখে নেওয়া যাক এ ঈদের সেরা ১০টি নাটক।


১. ইতি, মা: এই সময়ের প্রিয় নির্মাতা আশফাক নিপুণের ‘ইতি, মা’ নিয়ে সকল দর্শকদের সাথে আলোচনায় যুক্ত হয়েছেন আরও অনেক জনপ্রিয় নির্মাতারাও। ‘ইতি, মা’ টেলিফিল্মটির গল্প একটি মধ্যবিত্ত পরিবারের গল্প, একজন মা এবং নিজেদের স্বার্থ ত্যাগ করা দুই ভাই-বোনের গল্প। এতে অভিনয় করেছেন-  আফরান নিশো, ঈশিতা, শিল্পী সরকার অপু আর আবির মির্জা। প্রধান চরিত্রে আফরান নিশো ও ঈশিতার ভাই-বোনের অভিনয় দর্শকনন্দিত ।


২. বোধ: এই নাটকে মোশাররফ করিম, তাসনুভা তিশা, আশীষ খন্দকার আর রুনা খান – প্রত্যেকের অভিনয় পেয়েছে ভূয়সী প্রশংসা। নাটকটি পরিচালক ছিলেন রাফাত মজুমদার রিংকু  মোশাররফ করিম ও তাসনুভা তিশাকে ভিন্নভাবে উপস্থাপন করেছিলেন। দেখাতে চেয়েছেন নিজের বিবেককে জাগ্রত করতে পারলে ভেতরের মানুষটি জেগে ওঠে। এটা আসলে মানুষের জেগে উঠা না, বোধের জেগে উঠা বললেই বেশি মানাবে। এই বোধ তৈরি হলে যে কোনো অসৎ মানুষ ফিরে আসে সৎ রাস্তায়। এই থিমের উপর ভিত্তি করে রাফাত মজুমদার রিংকু বানিয়েছেন ‘বোধ’ নাটকটি।





৩. জানবে না কোনদিন: বোকাবাক্সের পর্দায় ভালোবাসার গল্পকথক মিজানুর রহমান আরিয়ানের ভালোবাসার গল্প দেখতে দর্শকরা মুখিয়ে থাকেন। এরই ধারাবাহিকতায় এই ঈদ নাটক তালিকায় থাকছে ‘জানবে না কোনদিন’ নাটকটি। পূর্ব আর তাসনিয়া ফারিনের অনবদ্য অভিনয়ে মুগ্ধ না হয়ে উপায় নেই। একজন স্ত্রীর প্রতি তার স্বামীর ভালোবাসা কতখানি গভীর হবে বা খারাপ সময়ে স্ত্রীকে সাহস যোগাতে স্বামী কতটা ত্যাগ করতে পারে – এই বাস্তবতাই ফুটিয়ে তোলা হয়েছে এই নাটকে।





৪. কেন: ৮০’র দশকে চট্টগ্রাম শহরে বেড়ে উঠা দুই তরুণ-তরুণীর ভালোবাসার গল্প নিয়ে চূড়ান্ত যত্ন আর ভালোবাসায় নির্মাতা মাহমুদুর রহমান হিমি বানিয়েছেন ‘কেন’ নাটকটি। বর্তমান নাটকে যেভাবে চোখে চোখে তাকানোতেই প্রেম হয়ে যাচ্ছে, সেই সহজ প্রেমের ভিড়ে রক্ষণশীল এক প্রেমের গল্প ‘কেন’। আর তাতে অভিনয় করেছেন তৌসিফ মাহবুব ও মেহজাবিন। তাদের নাটকের অভিনয় দেখে ভূয়সী প্রশংসা করেছে দর্শক।





৫. ব্যঞ্জনবর্ণ: তরুণ নির্মাতা মাবরুর রশিদ বান্নাহ, মাঝে মাঝেই বৃত্তের বাইরে গিয়ে গল্প খুঁজে আনেন। ‘আশ্রয়’ বা ‘ব্যঞ্জনবর্ণ’ তেমনই কিছু গল্প। গত বছর আশ্রয় আর এই বছর ব্যঞ্জনবর্ণ দিয়ে দর্শকদের মুগ্ধ করেছেন নির্মাতা। এতে অভিনয়ের যাদু দেখিয়েছেন মোশাররফ করিম তার স্ত্রী চরিত্রে শায়লা সাবি।





৬. যে শহরে টাকা উড়ে: মোশাররফ করিম যে কী নিখুঁত অভিনেতা তার প্রমাণ মিলে এই টেলিফিল্মে। তার দ্বৈত চরিত্রের অভিনয়ে মুগ্ধ না হয়ে উপায় নেই। নির্মাতা সঞ্জয় সমাদ্দারের ঈদে যে কয়েকটি কাজ প্রচার হয়েছে,তার মধ্যে এটি অন্যতম। গল্প, অভিনয় আর নির্মাণ – সব ক্ষেত্রেই প্রচুর সুনাম কুড়িয়েছে টেলিফিল্মটি। মোশাররফ ছাড়া এই নাটকে আরো অভিনয় করেছেন তাসনিয়া ফারিন, সেমন্তি শৌমি ।





৭. নির্বাসন: শর্টফিল্মের আলোচিত নির্মাতা ভিকি জাহেদ এবার নির্মাণ করেছেন একটি নাটক। নিষ্ঠুর শহরের নির্মমতা নিয়ে বানানো ‘নির্বাসন’ নামের নাটকে আছেন আফরান নিশো আর মেহজাবিন। ঈদ নাটক তালিকায় এটাও হয়েছে দর্শকনন্দিত।





৮. শূন্য পাতার চিঠি: বর্তমানে গ্রামীণ প্রেক্ষাপটের নাটক খুব কমই হয়। গ্রামীণ স্বাদ পাইয়ে দেওয়ার খরার এই সময়ে ‘শূন্য পাতার চিঠি’ টেলিফিল্মটি বেশ সাড়া জাগিয়েছে। সাইদুর রহমান রাসেল পরিচালিত ও মুনতাহা বৃত্তা রচিত ভিন্নধর্মী এই রোমান্টিক ফিকশনে দ্যুতি ছড়িয়েছেন অ্যালেন শুভ্র আর মিষ্টি জাহান।





৯. বাবার বুকের ঘ্রাণ: মেজবাহ উদ্দিন সুমনের রচনা ও সাজ্জাদ সুমনের পরিচালনায় চমৎকার গল্পের নির্মাণ ‘বাবার বুকের ঘ্রাণ’। বাবা এমন একটা শব্দ, যার বিশালতা বিশাল, প্রাচীন বটবৃক্ষের চেয়েও বিশাল। যার মায়ার সীমানা নীল আকাশকেও ছাড়িয়ে যেতে পারে। এই ‘বাবা’ শব্দটার মহত্ত্ব নিয়েই ইমন আর সারওয়াত আজাদ বৃষ্টি অভিনীত অসাধারণ নাটক ‘বাবার বুকের ঘ্রাণ’। তাই তো এই জীবনঘনিষ্ঠ গল্পের নাটকটি জায়গা করে নিয়েছে ঈদ নাটকের তালিকায়।





১০. ক্রিস্টালের রাজহাঁস: বিখ্যাত কথাসাহিত্যিক রাবেয়া খাতুনের উপন্যাস অবলম্বনে মাসুম শাহরিয়ারের রচনা ও আবু হায়াত মাহমুদের পরিচালনায় নির্মিত নাটক ‘ক্রিস্টালের রাঁজহাস’। ধরাবাঁধা আর আমাদের চেনাজানা প্রেমের গল্পের বাইরের গল্প এটি। আর একটু ভিন্ন প্রেমের গল্পই হয়তো দর্শকরা খুঁজছে, যা বোঝা যায় এই নাটকের প্রশংসায়। এতে প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছে মিথিলা ও ইরফান সাজ্জাদ।




রাকিবুল / দৈনিক সংবাদপত্র 

0 Shares

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here