অভিনয়ে ফেরার প্রস্তাব পাচ্ছেন শিল্পী!

0
11

এক সময়ের জনপ্রিয় চিত্রনায়িকা শিল্পী। ১৯৯৫ থেকে ২০০০-তার ক্যারিয়ারের ব্যাপ্তি মাত্র পাঁচ বছর। এ পাঁচ বছরে অভিনয় করেছেন ৩৬টি সিনেমায়। তার অভিনীত সবচেয়ে জনপ্রিয় সিনেমা হচ্ছে মোহাম্মদ হোসেন প্রযোজিত ও রানা নাসের পরিচালিত ‘প্রিয়জন’। এতে তিনি সালমান শাহের বিপরীতে অভিনয় করেছিলেন। ‘নাগ নর্তকি’ দিয়ে ক্যারিয়ার শুরু করা শিল্পীর আলোচিত আরও কয়েকটি সিনেমা হচ্ছে ‘বাংলার কমান্ডো’, ‘বাবা কেন চাকর’, ‘শক্তের ভক্ত’, ‘ক্ষমা নেই’, ‘মুক্তি চাই’ ও ‘লম্পট’। সর্বশেষ তিনি নায়করাজ রাজ্জাকের ‘প্রেমের নাম বেদনা’ এবং দেওয়ান নজরুলের ‘সুজন বন্ধু’ সিনেমায় অভিনয় করেন। ক্যারিয়ারের সুবর্ণ সময়ে কোনো পূর্ব ঘোষণা ছাড়াই অভিনয় থেকে বিদায় নেন। এরপর স্বামী, সংসার, সন্তান নিয়েই ব্যস্ত। সিনেমায় কাজ না করলেও গত ২০ বছর এ অঙ্গনের বেশ কিছু মানুষের সঙ্গে ঠিকই যোগাযোগ ছিল তার। এখনো রয়েছে। একবার বলেছিলেন অভিনয়ে ফিরবেন। তবে কবে সেটা নির্দিষ্ট করে জানাননি। তবে শিল্পী জানান প্রতিনিয়তই তিনি অভিনয়ে ফেরার প্রস্তাব পান। যদিও আপাতত অভিনয় করার তেমন সময় সুযোগ নেই তার, কিন্তু তারপরও এখনো যখন অভিনয়ে ফেরার প্রস্তাব পান-শিল্পী বেশ পুলকিত হন।

শিল্পী বলেন, এখনো প্রায়ই নাটকে, সিনেমাতে অভিনয় করার প্রস্তাব আসে। বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন চ্যানেলে অনুষ্ঠানে অংশগ্রহনের জন্য ফোন আসে। যেমন ক’দিন আগেই সালমাণ শাহ’র মৃত্যু বার্ষিকী’তে বেশ কয়েকটি চ্যানেল থেকে ফোন এসেছিলো আমার এই নায়ক’কে নিয়ে কিছু বলার জন্য। আবার নিয়মিত টিভি চ্যানেলগুলোর ম্যাগাজিন অনুষ্ঠানেও অংশগ্রহনের প্রস্তাব আসে। বিজ্ঞাপনে মডেল হিসেবে কাজ করারও প্রস্তাব আসে। কিন্তু আসলে এখন আমার একদমই সময় নেই। আমার দুই সন্তান সানাদ ইকবাল ও অ্যাঞ্জেলিনা ইকবালকে নিয়েই অনেক ব্যস্ত থাকতে হয়। যে কারণে আপাতত অভিনয় করার কোনই সময় সুযোগ নেই। তবে ভবিষ্যতের কথা এখনই বলা যায়না। আগামীতে হয়তো অভিনয় করতে হতেও পারে। সেটা আসলে সময়ের উপর নির্ভর করছে।

১৯৯৫ সাল থেকে ২০০০ সাল এই পাঁচ বছরে শিল্পী ৩৬টি সিনেমায় অভিনয় করেছেন। শিল্পী অভিনীত সবচেয়ে জনপ্রিয় সিনেমা হচ্ছে মোহাম্মদ হোসেন প্রযোজিত ও রানা নাসের পরিচালিত ‘প্রিয়জন’। এতে শিল্পীর নায়ক ছিলেন বাংলা সিনেমার উজ্জ্বল নক্ষত্র সালমান শাহ। সিনেমাতে অভিনয়ের আগে শিল্পী তারই মামা মজনু’র হাত ধরে ‘শকুন্তলা’ নাট্যগোষ্ঠীর হয়ে মঞ্চে অভিনয় করেন। তার প্রথম অভিনীত সিনেমা মো: আওলাদ হোসেন পরিচালিত ‘নাগ নর্তকী’। কিন্তু প্রথম মুক্তিপ্রাপ্ত সিনেমা মোহাম্মদ হোসেন পরিচালিত ‘বাংলার কমান্ডো। পরবর্তীতে তাকে নায়ক রাজ রাজ্জাকের ‘বাবা কেন চাকর’, নূর হোসেন বলাইয়ের ‘শক্তের ভক্ত’ আবুল খায়ের বুলবুলের ‘ক্ষমা নেই’, মোহাম্মদ হোসেনের ‘মুক্তি চাই’, শহীদুল ইসলাম খোকনের ‘লম্পট’সহ আরো অনেক সিনেমায় অভিনয় করেন। সর্বশেষ তিনি নায়ক রাজ রাজ্জাকের ‘প্রেমের নাম বেদনা’ এবং দেওয়ান নজরুলের ‘সুজন বন্ধু’ সিনেমায় অভিনয় করেন। শিল্পী অভিনীত প্রথম নাটক আব্দুল্লাহ আল মামুন পরিচালিত ‘তোমরাই’। এতে তার বিপরীতে ছিলেন আজিজুল হাকিম ও মাহফুজ আহমেদ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here